প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কবিতায়, গদ্যে, নাটকে, সিনেমায় সর্বত্র সঠিক চেতনার প্রকাশ থাকতে হবে

শেখ আদনান ফাহাদ: ইরানের একজন হাফপ্যান্ট পরা নারীর ছবি দেখিয়ে সবাইকে মৌলবাদের বিষয়ে সতর্ক করছেন অনেকে। বাংলাদেশের কোনো প্রগতিশীল নারী কবে কখন হাফপ্যান্ট পরেছিলেন? হাফপ্যান্ট পরা কোনো নারী মুক্তিযোদ্ধা, ভাষা সংগ্রামী দেখাতে পারবেন? শাড়ি পরা নারীকে আমরা দেখেছি পাকিস্তান আমলে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জিহাদের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ব্রিটিশ আমলে আমাদের নারী বিপ্লবীরা কি হাফপ্যান্ট পরতেন? তারাও শাড়িই পরতেন। এসবই জিহাদ। বিশ^ ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ জিহাদ। একাত্তর সালের মুক্তিযুদ্ধ ছিল বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষকে জালেম পাকিস্তানিদের আক্রমণ থেকে বাঁচানোর জিহাদ। গণহত্যার বিরুদ্ধে মানবপ্রেমীদের জিহাদ। বুলেটের নির্মম আঘাত থেকে ফুলকে বাঁচানোর জিহাদ।

নিজের মাকে, বোনকে, প্রেমিকাকে, স্ত্রীকে ধর্ষণ থেকে বাঁচানোর জিহাদ। নিজের দেশকে বাঁচানোর জিহাদ। সেই জিহাদে নারী শাড়ি পরেই অংশ নিয়েছে। শাড়ি পরা নারীকে আমরা দেখেছি ভাষার দাবিতে মিছিল করতে। বেগম রোকেয়া তো শাড়ি পরেই বিপ্লব করেছেন। শেখ হাসিনা, সাজেদা চৌধুরী, মতিয়া চৌধুরী, ডাক্তার দীপু মনি, শিরিন শারমিন চৌধুরীরা তো শাড়িকেই নিজেদের পোশাক হিসেবে নিয়েছেন। গাধা প্রগতিশীল আর গাধা ধর্মান্ধদের কবলে পড়তে যাচ্ছে প্রিয় বাংলাদেশ। এর থেকে বাঁচতে হলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আজ সমাজের পরতে পরতে ছড়িয়ে দিতে হবে। ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিতে হবে। সমাজ যে পোশাককে, যে কৃষ্টিকে শত শত বছর ধরে গ্রহণ করেছে, তাকেই পুঁজি করে এগোতে হবে। শব্দের রাজনীতি আছে, ছবির রাজনীতি আছে, গানের রাজনীতি আছে। বোবা চেতনা দিয়ে কাজ হবে না। চেতনাকে ভাষা দিতে হবে। প্রকাশ করতে হবে। কবিতায়, গদ্যে, নাটকে, সিনেমায় সর্বত্র সঠিক চেতনার প্রকাশ থাকতে হবে। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত