প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মারুফ রায়হান খান : আমাকে দেখে দাঁড়ালো না কেন, আসন ছেড়ে দিলো না কেন, আগে সালাম দিলো না কেন, কেন, কেন?

মারুফ রায়হান খান :কথাটা রূঢ় সত্যি। তোমার মেনে নিতে কষ্ট হবে। তবে যতো আগে তুমি বুঝবে এবং মেনে নিতে পারবে ততোই তোমার জন্যে ভালো। দেখো, তুমি যে নেইম-ফেইমের জন্যে ছুটছো, খ্যাতির মোহে কখনও নিজের ব্যক্তিত্ব কখনও সততার সাথে আপোষ করছো সেটা ঠিক কাজ না। কোনো মানুষ অপরিহার্য না। এই যে আজ তোমাকে ছাড়া যেন কিছুই চলছে না, সব জায়গায় তোমাকে খোঁজাখুঁজি, তোমার স্তুতি করার লোকের অভাব নেই–সেই তারা কিন্তু তোমার প্রস্থানে তোমাকে আর মনেও করবে না। সর্বোচ্চ দুএকবার আফসোস করতে পারে কিন্তু তাদের কাজ কিন্তু চলেই যাবে। তোমার যদি কিছু অবদান থেকেও থাকে সময় নামক নিষ্ঠুর পাহাড়ের নিচে কিন্তু চাপা পড়ে যাবে।

তোমার মতো প্রতিভাধর কিংবা পরিশ্রমী কিংবা ডেডিকেটেড লোকের কিন্তু অভাব নেই পৃথিবীতে। তোমার সাম্রাজ্য ভেঙে পড়া কেবল সময়ের ব্যাপার। প্রকৃতি তো শূন্যস্থান পছন্দ করে না। আমার পরামর্শ হলো তুমি খ্যাতির পেছনে ছুটো না অযথা, তুমি নাম-ডাক পেতে হন্যে হয়ো না, তুমি তোমার প্রভাব-প্রতিপত্তি দেখানোর জন্যে ব্যস্ত হয়ো না তো, সবাই তোমাকে সম্মান করবে সমীহ করবে এমন ভাবনাটা সুস্থ চিন্তার বহিঃপ্রকাশ না। সেলেব্রিটিকে কি মানুষ আসলেই ভালোবাসে? বরঞ্চ তাদের প্রতি জেলাস হবার লোকের অভাব নেই, তাদের পতনে বিকটানন্দ পাবার জন্যে বহু লোক অপেক্ষায় থাকে। তুমি ভালোবাসা পেতে চাইলে সাধারণ কেউ একজন হও, মাটির মানুষ হও, নিরহঙ্কার হও, বোকা বোকা মানুষ হও। তোমার মনের মধ্যে যদি আমাকে দেখে দাঁড়ালো না কেন, আসন ছেড়ে দিলো না কেন, আগে সালাম দিলো না কেন জাতীয় ভাবনা থাকে তবে তুমি সংশোধিত হও। তোমার মাঝে অহঙ্কার আছে, নিজেকে বড় ভাবার প্রবণতা আছে।

হুমায়ূন আহমেদকে ছাড়াও কী অবলীলায় বইমেলা হচ্ছে, এম আর খান স্যারকে ছাড়াও কী অনায়াসে শিশু-চিকিৎসা চলছে…এক এক করে সব বিখ্যাত ও জনপ্রিয় মানুষের কথা চিন্তা করে দেখো…পৃথিবী আপন গতিতে চলছে, কেউ কারও জন্যে থেমে নেই…তাদের তুলনায় তুমি আর কী…

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত