প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বখশিশ চ্যালেঞ্জে চমকে দিচ্ছেন অভিনেতা ডনি ওয়াহলবার্গ!

ডেস্ক রিপোর্ট: চলতি বছরের শুরু থেকেই পিলে চমকানো বখশিশ দিয়েই যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের অভিনেতা, গায়ক ও গীতিকার ডনি ওয়াহলবার্গ। তার পুরো নাম ডোনাল্ড এডমন্ড ওয়াহলবার্গ জুনিয়র। কোথাও ঘুরতে গেলেই স্ত্রী জেনি ম্যাকার্থিকে নিয়ে রেস্তোরাঁয় বসে সামান্য খাবার খেয়েই রেস্তোরাঁর পরিচালককে মোটা অংকের বখশিশ দিয়ে সবার পিলে চমকে দিলেন। বছরের শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বেড়াতে গিয়ে একের পর এক এমন ঘটনা ঘটাচ্ছেন তিনি।

গত শনিবার ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের বোস্টনের পার্শ্ববর্তী শহর প্লাইমাউথের মার্শল্যান্ড রেস্তোরাঁয় ঢুকে খাবার খেয়েছেন মাত্র ৩৫.২৭ ডলার বাংলাদেশি মুদ্রায় ২ হাজার ৯ শত ৯৬ টাকা। কিন্তু খাওয়া শেষে বিলের সঙ্গে পরিচারক বা সার্ভার ডেনিস অ্যান্ড্রুজের হাতে বখশিশ ধরিয়ে দিলেন ২ হাজার ২০ ডলার বা ১ লাখ ৭১ হাজার ৬ শত ১৯ টাকা। এ অবিশ্বাস্য ঘটনা সামান্য একজন ওয়েটারের কাছে ঠিক পিলে চমকানোর মতোই।

মার্শল্যান্ড রেস্তোরাঁর কর্তৃপক্ষ গতকাল বুধবার ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘আমাদের বন্ধু ডনি ওয়াহলবার্গকে বিশেষ বিশেষ ধন্যবাদ! মোটা অংকের বখশিশ দেওয়া সম্পর্কে যখন ডনি ওয়াহলবার্গকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল তখন তিনি বলেছিলেন যে পরবর্তী কে?’ মার্শল্যান্ড রেস্তোরাঁর কর্তৃপক্ষ ওয়াহলবার্গের কাছ থেকে বকশিস প্রাপ্তির একটি ফটোও পোস্ট করেছে। যার মধ্যে বোস্টনের জন্মগ্রহণকারী ডনি ওয়াহলবার্গের হাতের লেখা বখশিশ পরিমাণ ও স্বাক্ষর রয়েছে।

ডনি অতীতেও বোস্টনে ছিলেন এবং তিনি সর্বদাই এ রেস্তোরাঁয় খেতেন। মার্শল্যান্ডের রেস্তোরাঁ মালিক মার্টি ফিঞ্চ বলেন, ওইদিন তার খাবারের স্বাভাবিক অর্ডার ছিল যেমন- কিছু গ্রিলড অ্যাসপারাগাস এবং কিছু পোচ ডিমের সঙ্গে স্টেক টিপস। তিনি জানেন, ডনি সবসময় এ ধরনের খাবারেই পছন্দ করেন।

অ্যান্ড্রুজ এ তারকার খাবারের অর্ডার নিতে পেরে বেশ আনন্দিত ছিলেন। তবে পরবর্তী সময়ে কি পরিমাণ বকশিস হবে তা সে আশা করছিল না। ডনি ওয়াহলবার্গ চলে যাওয়ার সময় বলেছিলেন, ডেনিস আপনি প্রস্তুত আছেন। শেষে বিলের সঙ্গে মোটা অংকের বখশিশ দেখে ডেনিসের মুখের চোয়াল যেন নেমে গেল। আশ্চর্য পরিমাণ বকশিস রেস্তোরাঁর সব কর্মিদের পিলে চমকে দিয়েছিল।

রেস্তোরাঁ মালিক মার্টি ফিঞ্চ বলেন, তিনি রেস্তোরাঁটির আশেপাশের আরও দুটি লোকেশন চালান। আট বছর ধরে মার্শল্যান্ডে কাজ করেছেন অ্যান্ড্রুজ। বখশিশের অর্থ তার সহকর্মীদের সঙ্গে ভাগ করে নেন। ডেনিস খুব উদার ছিলেন। তিনি তার সহকর্মী ওয়েটস্ট্যাফ এবং রান্নাঘরে থাকা ছেলেদের এ কথা জানিয়েছিলেন এবং তিনি আসলে সবাইকে এ অর্থের ভাগও দিয়েছেন।

কোভিড-১৯ মহামারির-এ সময় অভূতপূর্ব আর্থিক চাপের মুখোমুখি হওয়ায় অনেকগুলো স্বাধীন রেস্তোরাঁ ও ছোট ব্যবসায়ের জন্য বছরটি ছিল এক কঠিন সময়। মার্শল্যান্ড রেস্তোরাঁও এর ব্যতিক্রম নয় বলে জানান ফিঞ্চ। তিনি বলেন, ‘মালিক হিসেবে আমরা এই আট মাস ধরে ভীষণ লড়াই করেছি। আমরা সত্যিই এই দরজা উন্মুক্ত রাখার চেষ্টা করেছি। আমরা আসলে কয়েক মাস বন্ধ করেছিলাম কারণ এটি দেখতে ভালো লাগছিল না। তবে আমরা আবার খুলেছি, এটি আমাদের একটি আশীর্বাদ। আমরা এক রকম হোমকুকড খাবার তৈরি করে থাকি। এটি পাড়া-টাইপের রেস্তোরাঁর মতো।’ তিনি ওয়াহলবার্গের উদারতা সম্পর্কে যোগ করেন, এটি সবার জন্য খুব উৎসাহব্যঞ্জক ছিল।

ডনি ওয়াহলবার্গের ২০২০ সালের এটা বখশিশ (টিপ) চ্যালেঞ্জ। ২০২০-এর জানুয়ারিতে মিশিগানে এটি শুরু হয়। থান্ডার বে রিভার রেস্তোরাঁটিতে একটি সার্ভার একটি ২ ডলার বিলের উপর ২০২০ ডলার টিপ পেয়েছিল। ২ জানুয়ারি ওয়াহলবার্গ এবং তার স্ত্রী দ্য মাস্কড সিঙ্গার হোস্ট জেনি ম্যাকার্থি, ইলির সেন্ট চার্লসে তাদের আইটিএইচপি সার্ভারের জন্য ২ হাজার ২০ ডলার টিপ রেখেছিলেন।

কয়েক দিন পরে ৫ জানুয়ারি হ্যারি স্টাইলস যিনি দীর্ঘদিনের পাল জেমস কর্ডেন এবং অ্যাডিলের সঙ্গে অ্যাঙ্গুইলায় সেই সময় ছুটিতে ছিলেন, একটি গ্রুপের ডিনার শেষে ৪৭২.৫০ ডলার বিলে ২ হাজার ২০ ডলার বখশিশ ছেড়েছিলেন। বলেন, ‘আমি শুধু কাঁদতে শুরু করেছিলাম। আমি এটি বিশ্বাস করতে পারি না। মানে, কে করে? এটি একটি আশীর্বাদ ছিল’, টিপটি প্রাপ্ত আইএইচওপি সার্ভার বেথেনি প্রোভেনচার সেই সময় উপস্থিত সবাইকে বলেছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘আমি সবেমাত্র একটি অ্যাপার্টমেন্টে চলে এসেছি, আমি একক মা। আমার নিজের ছেলের সঙ্গে থাকি। তাই আমি প্রতিদিনের লড়াইকে শেষ করার চেষ্টা করি। এখন আমি আসবাবপত্র কিনতে পারি, কিছু টাকা ব্যাঙ্কে রাখতে পারি এবং নিশ্চিত করতে পারি যে আমার ছেলেটি ভালো থাকুক।’

২০২০ সালের টিপ বা বখশিশ চ্যালেঞ্জ শুরুর অনেক আগেই ওয়াহলবার্গ মোটা টিপসের সাহায্যে রেস্তোরাঁ কর্মিদের অবাক করে দিয়েছিলেন। ২০১৭ সালে গায়ক মেরিল্যান্ডে নাইট শিফটে কর্মরত ওয়াফল হাউস কর্মচারিদের জন্য ৫০০ ডলার রেখেছিলেন। নর্থ ক্যারোলিনা শার্লোটেতে ওয়াফল হাউস সার্ভারের জন্য ২ হাজার ডলার টিপ এবং সামনের সারির কনসার্টের টিকিট এবং ব্যাকস্টেজ পাস উপহারও দিয়েছিলেন ডনি ওয়াহলবার্গ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত