প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিদেশি সংবাদমাধ্যমগুলোর ওপর ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার বৈধতা দেয়ার অভিযোগ আনলেন ম্যাক্রোঁ

লিহান লিমা: [২] মার্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ অভিযোগ করেন, বিদেশি সংবাদমাধ্যমগুলো ফ্রান্সের ‘ধর্মনিরপেক্ষতাবাদ বা চার্চের সঙ্গে রাষ্ট্রের পৃথক সম্পর্ক বুঝতে পারছে না। উপরুন্তু মুসলিমদের ওপর ফ্রান্সের নীতির সমালোচনা করছে।’ গার্ডিয়ান/ডেইলি মেইল

[৩]‘ইসলামকে সারা বিশ্বের জন্য সংকট’ বলে মন্তব্য এবং মুহম্মদ (সা.) এর কার্টুন প্রদর্শনের সপক্ষে ম্যাক্রোঁর অবস্থানের পর থেকেই কিছু মুসলিম দেশে ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের দাবীতে বিক্ষোভ হয়েছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালসহ কিছু ইংরেজি সংবাদ মাধ্যম মুসলিমদের প্রতি ফ্রান্সের নীতির সমালোচনা করেছে।

[৪]টাইমসকে ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘৫ বছর পূর্বে যখন আমরা সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছিলাম প্রত্যেকটি দেশ আমাদের সঙ্গে ছিলো। যারা কি না এক সময় ফ্রান্সের বিপ্লব ও বৈচিত্রময় সংস্কৃতি নিয়ে লিখেছে তাদেরই একটি অংশ আজ সহিংসতাকে বৈধতা দিয়ে ফ্রান্সকে বর্ণবাদী ও ইসলামবিরোধী বলছে। ফ্রান্সের সংস্কৃতি আমেরিকার মতো নয়। আমরা বিশ্বায়নপন্থী, বহুসংস্কৃতিবাদী নই। আমাদের সমাজে কৃষ্ণাঙ্গ, শ্বেতাঙ্গ, ক্যাথলিক কিংবা মুসলিমের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। তাদের পরিচয় তারা ফ্রান্সের নাগরিক।’

[৫] গত ১৬ অক্টোবর শার্লি হেবদোর প্রকাশিত মুহম্মদ (সা.) এর কার্টুন নিয়ে ক্লাসে আলোচনা করায় চেচনিয়া থেকে আসা এক মুসলিম শরণার্থী শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে গলাকেটে হত্যা করে। এরপরই ‘চরমপন্থী ইসলাম’ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ঘোষণা দেন ম্যাক্রোঁ। এক সপ্তাহ পর ২৯ অক্টোবর দেশটির নিচ শহরের ক্যাথলিক চার্চে চেচনিয়া থেকে আসা এক অভিবাসীর হামলায় ৩জন নিহত হন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত