প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নবাব পরিবারের সন্তান ও মন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয়ে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৬

সুজন কৈরী : [২] রাজধানীতে নবাব পরিবারের সন্তান ও মন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয়ে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে প্রতারক চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী (৪৮), মো. রাশেদ ওরফে রহমত আলী ওরফে রাজা (৩৪), মীর রাকিব আফসার (২০), মো. সজীব ওরফে মীর রুবেল (৩৩), মো. আহম্মদ আলী (৩৮), মো. বরকত আলী ওরফে রানা (৩২)।

[৩] বুধবার রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে সিটিটিসির ইকোনমিক ক্রাইম এন্ড হিউম্যান ট্রাফিকিং টিম। তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত নবাব পরিবারের এ্যাম্বুশ সীল, ওয়াকিটকি সেট, বেতারযন্ত্র, ভিওআইপি সরঞ্জাম, ল্যাপটপ, একাধিক মোবাইল, সিমকার্ড, মেডিক্যাল রিপোর্ট ও পাসপোর্টের কপি এবং বিভিন্ন ভ‚য়া কোম্পানীর লিফলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

[৪] সিটিটিসির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো. তৌহিদুল ইসলাম জানান, গত ২৪ অক্টোবর মোহাম্মদপুর থানায় বিদেশে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে একটি মামলা হয়। অভিযোগে বলা হয়, করোনার কারণে সিংগাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ৫শ’ লোক নিয়োগ দেয়া হবে। অভিযুক্ত নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী মামলার বাদীকে বিদেশ যেতে আগ্রহী ৪শ’ লোক সংগ্রহ করতে বলেন। তার কথায় বিশ্বাস করে বাদী বিদেশ গমনে আগ্রহী এমন ৪শ’ লোকের কাছ থেকে ৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকা সংগ্রহ করে তাকে দেন। টাকা পেয়ে কাউকে বিদেশে না পাঠিয়ে বাদীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন আসকারী। মামলার তদন্তের সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে আসকারীসহ ৬ জনকে আটক করা হয়।

[৫] প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা জানিয়েছেন, চক্রটি ১০ কোটি টাকার বেশি প্রতারণা করে হাতিয়ে নিয়েছে। চক্রের প্রধান নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী নিজেকে নবাব সলিমুল্লাহ খাঁনের নাতি হিসেবে পরিচয় দেন। পারিবারিক সম্পর্কের দাবি করে বিভিন্ন লোকের কাছে গণভবনে তার অবাধ যাতায়াত বলে প্রচারণা করেন। তার দুবাইয়ে গোল্ডের কারখানা থাকার কথা জানান। বাবা ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, নিউইয়র্কে থাকেন। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের মালিকানায় অংশীদার রয়েছে বলে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করেন। বাবার ব্যবসা তিনি নিজেই দেখেন। ফেসবুক প্রোফাইলে মন্ত্রী-এমপিসহ সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে ছবি উঠান। পরে সেই ছবি প্রতারণার কাজে ব্যবহার করতেন।

[৬] বেসরকারী টেলিভিশন ডিবিসি নিউজ অনলাইনকে সিটিটিসি’র উপ কমিশনার মাহাফুজুল ইসলাম বলেন, বিদেশে লোক পাঠানোর নাম করে সাড়ে ৩শ জন লোকের কাছ থেকে মেডিক্যাল করা বাবদ সাড়ে আট হাজার টাকা করে নিয়েছেন আসকারী। ধানমন্ডির জাহাজবাড়ি, পুরান ঢাকার হোসনি দালানসহ এ ধরণের বিভিন্ন সম্পদের মালিকানার দাবি করে চেষ্টা করছিলেন বেঁচা কেনার। জাতীয় পরিচয়পত্রে স্নাতক পাশ দেখালেও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাধ্যমিক পাশের কথা স্বীকার করেছেন।

[৭] মাহাফুজুল ইসলাম আরও বলেন, তিনি ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে হারিকেন মার্কা নিয়ে নির্বাচন করেছিলেন। তার বক্তব্য নবাব সলিমুল্লাহ খানের আদর্শ জনগণের কাছে পৌঁছে দেয়া এবং সেবা করার জন্য নির্বাচন করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত