প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চলচ্চিত্রশিল্পের কারও কারও দুরভিসন্ধির কাছে আমি হেরে গেছি, বললেন রিয়াজ

ইমরুল শাহেদ : অত্যন্ত আবেগপ্রবণ হয়ে এ কথা বলেছেন রিয়াজ। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিলো, চলচ্চিত্রশিল্পের কল্যাণেই তিনি চিত্রনায়ক রিয়াজ হিসেবে পরিচিত এবং প্রতিষ্ঠিত। চলচ্চিত্রের দুর্দিনে তিনি চলচ্চিত্রের কল্যাণে কি ভ‚মিকা পালন করছেন? জবাবে তিনি বলেন, ‘কিছুই না। আমার কী করণীয় আছে বলুন? যখন করার সুযোগ ছিলো তখন আমাকে এবং আমাদের প্রজন্মের নায়কদের কিছুই করতে দেওয়া হয়নি।

একজন নায়ক একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার এবং বেশি পারিশ্রমিক নেওয়ার জন্য চলচ্চিত্র ব্যবসায়ের কাউকে কাউকে অকাতরে অর্থ দিয়েছেন। আমার কোনো ছবি মুক্তির পর্যায়ে এলেই কিছু এজেন্ট সিনেমা হল মালিককে বলতেন অমুক ছবি আসছে। কিন্তু চলবে না। কিছু বুকিং এজেন্ট তাদের নানা উপায়ে নিজের করে নিয়েছেন যাতে আমার ছবি প্রদর্শন না করে। তিনি শেষ পর্যন্ত একক আধিপত্য বিস্তার করতে পেরেছেন। এভাবেই আমরা দৃশ্যপট থেকে হারিয়ে গেছি।’

তার কথার ধারাবাহিকতায় তাকে বলা হলো, প্রশিক্ষিত একজন সৈনিকতো কখনো পরাজয় বরণ করে না। হয় তিনি শহীদ হবেন, না হয় জয়ী হবেন। তার মাঝামাঝি বিষয়টাতো দুঃখজনক। একজন প্রকৃত সৈনিক তো যুদ্ধক্ষেত্রে প্রতিপক্ষের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া মেনে নিতে পারেন না। রিয়াজ সেটা কেন মেনে নিলেন? তিনি বলেন, ‘আমি বিমান বাহিনীর লোক হিসেবে অবশ্যই প্রশিক্ষিত একজন সৈনিক, এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই।

কিন্তু আমাদের বিরুদ্ধে যে দুরভিসন্ধি হচ্ছে সেটা আমরা জানতাম না। যখন জেনেছি তখন আর কিছু করার ছিল না। পরিচালক এফআই মানিক আমাকে নিয়ে একের পর এক হিট ছবি নির্মাণ করেছেন। এক পর্যায়ে তাকেও প্রলুব্ধ করে নিয়ে যাওয়া হলো। যুদ্ধ ক্ষেত্রে যখন দেখা যায় যোদ্ধা সৈনিকরা সব মীর জাফরের দলে যোগ দিয়েছে, তখন কমান্ডারের পরাজিত হওয়া ছাড়া আর কি করণীয় থাকে? আমরা এবং আমি এভাবেই পরাজিত হয়েছি।’

সর্বাধিক পঠিত