প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পালিত হচ্ছে নবমী, মর্ত্য ছেড়ে কাল দেবী যাবেন কৈলাশে

লাইজুল ইসলাম: [২] উৎসব মুখর পুরো দেশের সনাতনধর্মাবলম্বী সম্প্রদায়। আজ মহা নবমী। একদিন পরেই সবাইকে কাঁদিয়ে কৈলাশে স্বামীগৃহে ফিরে যাবেন দশভুজা দেবী দুর্গা। এবার দেবী এসেছেন দোলায় চড়ে, ফিরবেন গজে করে।

[৩] হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার চতুর্থ দিন মহানবমী। সকালে বিহিত পূজার মাধ্যমে শুরু হয়েছে এর আনুষ্ঠানিকতা।

[৪] পুরাণ মতে, এ দিনে লঙ্কা অধিপতি রাবণ বধের পর নবমী তিথিতে ১০৮টি নীলপদ্ম দিয়ে দেবী দুর্গার পূজা করেছিলেন রামচন্দ্র। তাই এ মহানবমীতে ষোড়শ উপাচারের সঙ্গে ১০৮টি নীলপদ্মে পূজিত হবেন দুর্গা।

[৫] নবমী সন্ধিক্ষণে অনুষ্ঠিত হবে সন্ধিপূজা। মহিষাসুর বধের সময় দেবী দুর্গা প্রচণ্ড ক্রোধে কৃষ্ণবর্ণ রূপ ধারণ করেছিলেন। তাই পূজার এ আচারের সময় দেবীকে চামুণ্ডা রূপে পূজা করা হয়েছে। অর্থাৎ যিনি চণ্ড ও মুণ্ডের বিনাশিনী। পূজার এ মুহূর্তটি আরও একটি কারণে স্মরণীয়। দেবী দুর্গার আশীর্বাদ নিয়ে রামচন্দ্র এ মুহূর্তেই রাবণকে বধ করেছিলেন।

[৬] নবমীতে সকাল ৫টা ১৭ মিনিট থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত মহানবমী কল্পারম্ভ ও মহানবমীর বিহিত পূজা, সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটে দশমীর বিহিত পূজা ও দর্পণ নিরঞ্জন। এই দিন অগ্নিকে প্রতীক করে দেবীকে আহুতি দেওয়া হয়। অগ্নি সব দেবতার যজ্ঞভাগ বহন করে যথা স্থানে পৌঁছে দিয়ে থাকেন। এদিন দুর্গাপূজার অন্তিম দিন। পরের দিন কেবল বিজয়া ও বিসর্জনের দিন। এ কারণে নবমীর রাত হয় উৎসবের রাত। এছাড়া নবমীর সকাল থেকেই মণ্ডপে মণ্ডপে মা দুর্গাকে দেখার জন্য ভিড় হয় দর্শনার্থীদের।

[৭] তবে এবার করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পূজার আয়োজন করা হয়েছে সীমিতি পরিসরে। উৎসব সংশ্লিষ্ট বিষয় পরিহার করে সাত্ত্বিক পূজায় সীমাবদ্ধ রাখা হয়েছে। আজ নবমীর দিনে মণ্ডপে মণ্ডপে প্রসাদ বিতরণ এড়ানো হয়েছে। সেইসঙ্গে সন্ধ্যায় আরতিও বন্ধ থাকবে। ভক্ত সমাগম যেন না ঘটে এজন্য সন্ধ্যার আগে বন্ধ করা হবে পূজা মণ্ডপ।

[৮] এদিকে বিজয়া দশমীতে এবার বিজয়ার শোভাযাত্রা হবে না। মন্দিরগুলো তাদের নিজ নিজ ব্যবস্থাপনায় প্রতিমা বিসর্জনের দিবে বলেও জানিয়েছে পূজা উৎযাপন পরিষদ।

[৯] সারা দেশে এবার মোট ৩০ হাজার ২৩১টি মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। গতবারের থেকে করোনার কারণে এবার এক হাজার ১৮৫টি মণ্ডপে পূজা কম হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত