প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খুব শিগগির করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে সেনাসদস্যরা জানালেন ট্রাম্প

রাশিদুল ইসলাম : [২] করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন শিগগির আসছে এ আশ্বাস দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এ ভ্যাকসিন আসছে। অন্যদিকে বাইডেন ভাইরাস পরিস্থিতি আরো কঠিন হবে আশঙ্কা করে একে ‘ডার্ক উইন্টার’ হিসেবে অভিহিত করেন। ট্রাম্প বলেন ভ্যাকসিন তৈরি। কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তা সরবরাহের ঘোষণা দেয়া হবে। সেনা সদস্যরা এটি সরবরাহ করবে। দ্রুত কাজ হচ্ছে। ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিয়ে কোনো নিশ্চয়তা আছে কি না শেষ নির্বাচনী বিতর্কে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন জনসন এন্ড জনসন ও মোডার্নাসহ আরো কয়েকটি ওষুধ কোম্পানি বাজারে খুব শিগগির ভ্যাকসিন ছাড়তে যাচ্ছে।এব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মার্কিন সেনাবাহিনীর একজন জেনারেলের সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানান। সিএনএন/ফক্স নিউজ

[৩] ডেমোক্রেটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইহেন বলেন এর আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন গত ইস্টারের শেষে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। এই একই ব্যক্তি বলেছিলেন ঘাবড়ানোর কিছু নেই, গ্রীষ্মের শেষে ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। আমরা অন্ধকার শীতে প্রবেশ করছি। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কোনো পরিস্কার পরিকল্পনা নেই। আগাম বছরের মাঝামাঝি সময়ের আগে মার্কিন নাগরিকরা ভ্যাকসিন পাবে কি না তার কোনো আশা দেখছি না।

[৪] বাইডেন বলেন যার সময়কালে করোনাভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে দুই লক্ষাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে তাকে আবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে পুনর্নির্বাচিত করা উচিত হবে না। নির্বাচনের মাত্র ১২ দিন আগে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিতর্ক চলাকালে রিপাবলিকান প্রার্থী ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে খোঁচা দিয়ে এ মন্তব্য করেন ৭৭ বছর বয়সী বাইডেন। বাইডেন বলেন, “যে মানুষটি এত বেশি বেশি মৃত্যুর জন্য দায়ী তার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে থাকা উচিত না। বিষয়টি নিয়ে তার বিস্তৃত কোনো পরিকল্পনাই নেই।”

[৫] করোনা ইস্যু ছাড়াও বর্ণবাদ ছড়ানো নিয়ে ট্রাম্পের একহাত নেন বাইডেন। তার দাবি, এই প্রেসিডেন্টের আমলে যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদ প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। এ ছাড়া উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ায় ট্রাম্পের চেষ্টারও সমালোচনা করেছেন রিপাবলিকান প্রার্থী বাইডেন। তার দাবি, ‘ভন্ড’ কিমের সঙ্গে আলোচনা আর হিটলারের সঙ্গে আলোচনার নামান্তর। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে তার চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে। ট্রাম্প প্রশাসনের অভিবাসন নীতির কঠোর সমালোচনা করেছেন বাইডেন।

 

সর্বাধিক পঠিত