প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] এক সপ্তার মধ্যে আলুর দাম না কমালে ব্যবস্থা, বললেন রাজশাহী জেলা প্রশাসক

মঈন উদ্দীন: [২] সবজি আলুর দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে কৃষি বিপণন অধিদফতর। সরকার নির্ধারিত দামে আলুর কেনাবেচা নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসকদের ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে রাজশাহী কোল্ড স্টোরেজ ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণে রাজশাহী জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সভায় আলুর দাম কমাতে এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক। এক সপ্তাহের মধ্যে সরকার নির্ধারিত দামে আলু বিক্রি না করলে কোল্ড স্টোরেজগুলোতে অভিযান চালিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল।

[৩] সোমবার (২০ অষ্টোবর) রাজশাহী জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে আয়োজিত সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শরিফুল হকের সভাপতিত্বে জেলা পুলিশের কর্মকর্তা, রাজশাহী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের কর্মকর্তা, কৃষি বিপণন অধিদফতরের কর্মকর্তা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা, টিসিবি এর কর্মকর্তাসহ রাজশাহীর ২৫ টির অধিক কোল্ড স্টোরেজ ব্যবসায়ী ও কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

[৪] এ সময় কোল্ড স্টোরেজ অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা বলেন, কোল্ড স্টোরেজ ব্যবসায়ীরা আলুর মালিক না। কৃষকরা এখানে আলু রাখে আবার তারাই বিক্রি করে। কম দামে কৃষকরা আলু বিক্রি করতে যাচ্ছে না। তবে আমরা এখন আলু বিক্রি করতে ব্যবসায়ীদের তাগিদ দিবো। এ সময় তারা প্রতিকেজি আলু খুচরা ৩০ টাকা না করে ৪০ টাকা করার দাবি জানান।

[৫] সভায় জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেন, রাজশাহীতে বীজসহ এখনো প্রায় ১ লক্ষ মেট্রিক টনের মতো আলুর মজুদ আছে। সুতরাং আলুর দাম এতো বৃদ্ধি পাওয়ার কোনো যৌক্তিক কারণ নেই। তাছাড়া প্রায় ১ মাসের মধ্যেই বাজারে নতুন আলু উঠতে শুরু করবে তখন দেখা যাবে অনেকে আলু ফেলে দিচ্ছেন। তাই সরকারি দামেই আলু বিক্রি করতে হবে।

[৬] তিনি আরো বলেন, আমরা এক সপ্তাহ বাজার পর্যবেক্ষণ করবো। শনিবার- রোববারের মধ্যে আলুর দাম না কমালে সোমবার থেকে স্টোরেজগুলোতে অভিযান চালানোর মধ্যে দিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ সময় কোল্ড স্টোরেজ ব্যবসায়ীরা আলুর দাম কমানোর জন্য চেষ্টা করবেন বলে জানান। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত