প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিউটি পার্লার পরিচালনায় ইসলামের নির্দেশনা

ডেস্ক নিউজ: বিউটি পার্লার যদি ইসলাম বিরোধী কর্মকান্ড থেকে মুক্ত হয়, তাহলে তা পরিচালনা কিংবা সেখানে কাজ করার বৈধতা রয়েছে। বিউটি পার্লারে শরীয়াহ বিরোধী কর্মকান্ডগুলো হলো-

ক. ভ্রু প্লাক করা, শরীরে ট্যাটু আঁকা এবং পরচুল লাগানো। খ. শরীরের জন্য ক্ষতিকর কেমিক্যালবিশিষ্ট বিভিন্ন প্রসাধনী ব্যবহার করা।

গ. তাবাররুজ তথা মহিলাদের অশ্লীলতাপূর্ণ প্রদর্শনীকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলা যা তাদের তাবাররুজের গুনাহে সহযোগিতা করে।
ঘ. মহিলাদের সতর অনাবৃত হওয়া ও সতরের প্রতি দৃষ্টিপাত করা বিশেষত বধু সাজানোর কাজে। ঙ. কাফের – মুশরিক ও কুরুচিপূর্ণ মহিলাদের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ হেয়ারকাটিং দেওয়া ও চুলে রং করা। চ. নকল নখ ও পাপড়ি ব্যবহার করা। ছ. পরপুরুষের মনোযোগ আকর্ষণের জন্য অশ্লীল সাজ নেওয়া।

জ. মহিলা পুরুষের ও পুরুষ মহিলার সাজ নেওয়া যা নিকৃষ্ট গুনাহসমূহের অন্যতম।

কিছু কিছু মহিলা আছে যারা গোপনাঙ্গের অযাচিত লোম অপসারণ করার জন্য, বিশেষ করে বিয়ের আগের রাতে, পার্লারে যায়। এতে করে সতর অনাবৃত করা ও অন্যের সতরের প্রতি দৃষ্টিপাত করার গুনাহ হচ্ছে।

আল্লাহ তা’য়ালা বলেন- তোমরা তোমাদের গোপনাঙ্গের হেফাজত করো। সূরা মু’মিনূন: আয়াত ৫। আর সতর আবৃত করে রাখাও লজ্জাস্থান হেফাজত করার অন্তর্ভুক্ত।

তাছাড়া ভ্রু প্লাক করা ও পরচুল লাগানো কবিরা গুনাহের অন্তর্ভুক্ত। নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এ কাজ যে করে ও এ কাজে যে সহযোগিতা করে উভয়কে অভিশম্পাত করেছেন।

নকল নখ কিংবা পাপড়ি ব্যবহার করা ও চোখে রঙিন লেন্স ব্যবহার করাও হারাম; কেননা এটি শরীরের সংশ্লিষ্ট অঙ্গের জন্য ক্ষতিকর। তদুপরি এর দ্বারা আল্লাহ তা’য়ালার সৃষ্টিকে বিকৃত করা ও মানুষকে ধোঁকা দেওয়া হচ্ছে।

তবে নিজ স্বামীর মনোরঞ্জনের জন্য মহিলাদের শরীয়তসমর্থিত পন্থায় মেকাপ নেওয়া, চুল সাজানো ও সুগন্ধি ব্যবহার করা শুধু জায়েজই নয়; বরং এ কাজে মহিলাদেরকে উৎসাহিত করা হয়েছে। কিন্তু ঘরের বাইরে মহিলাদের জন্য এগুলোর কোনোটিই জায়েজ নেই; এমনকি মসজিদে যাওয়ার সময়ও নয়।

আবু মূসা রা. থেকে বর্ণিত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন- যে নারী সুগন্ধি ব্যবহার করে ঘরের বাইরে যায় এবং পরপুরুষ তার সুগন্ধ পায় সে একজন ব্যভিচারী নারী হিসেবে পরিগণিত হবে। সুনানে নাসাঈ।

বিউটি পার্লারগুলো যদি উপরোক্ত শরীয়াহ বিরোধী কর্মকান্ড থেকে মুক্ত হয়, সেক্ষেত্রে পার্লার চালানো অথবা পার্লারে কাজ করার অনুমতি রয়েছে। অন্যথায় বিউটি পার্লার পরিচালনা করা, পার্লার ভাড়া দেওয়া, সেখানে কাজ করা অথবা পার্লারে যাওয়া সম্পূর্ণ নাজায়েজ ও ইসলামবিরোধী।

islamqa থেকে ফরহাদ খান নাঈমের ভাষান্তর। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত