প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খাবার নিয়ে মারামারি করে ২১ ইসরাইলি সেনা হাসপাতালে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: একটি সামরিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দুপুরের খাবারের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে নিজেদের মধ্যে মারামারা করে ২১ ইসরাইলি সেনা আহ’ত হয়েছেন। তাদের সেনা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। অধিকৃত জিভন্তি পদাতিক ব্রিগেডের কেটিজিওট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এ ঘ’ট’না ঘটে।

সেখানে দুটি আলাদা কোম্পানির সেনারা প্রশিক্ষণের জন্য ঘাঁ’টিতে অবস্থান করছিল। সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইসরাইল জানায়, রোববার তারা খাবারের জন্য লাইনে দাঁড়ালে বেদুইন ৫৮৫তম গোয়েন্দা ইউনিটের সদস্যদের সঙ্গে সাকেড ব্যাটালিয়ন কোম্পানির সদস্যদের কথা কা’টাকা’টি হয়। এক পর্যায়ে দু’দলের মধ্যে মা’রামা’রি শুরু হয়।

এ সময় মারামারিতে দুই দলের প্রায় ৩০ জন সেনাসদস্য জড়িয়ে পড়েন। এর মধ্যে ২১ জন আহ’ত হন। পরে ট্রেনিং কমান্ডার এসে তাদের এই মারামারি থামান। মা’রামা’রির এক পর্যায়ে সেনাদের কেউ কেউ অ’স্ত্রে গু’লি ভরে ফেলেন। আহ’তদের মধ্যে আটজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে দুইজন হাসপাতালে পুনরায় মারামারিতে লিপ্ত হন।

সে সংঘর্ষ দ্রুত থামিয়ে দেন একজন কমা’ন্ডার। ইসরাইলি সামরিক বা’হি’নী মা’রামা’রির ঘ’টনাটি খুবই অস্বাভাবিক ও মা’রা’ত্মক বলে বর্ণনা করেছে। তারা বলছে, এই ঘটনায় জড়িত প্রত্যেক সেনাসদস্যকে শাস্তির আওতায় আনা হবে। ইসরাইলের সামরিক বাহিনী বলেছে, এই সংঘর্ষ থামাতে যেসব কমান্ডার ব্যর্থ হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সামরিক প্রশিক্ষণ থেকে দুই কোম্পানিকেই সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে বলেও জানানো হয়। ৫৮৫ ইউনিটটি বেদুইন ও আরব খ্রিস্টানদের স্বেচ্ছাসেবীদের সমন্বয়ে গঠিত। আনুমানিক ১৫০০ বেদুইন বর্তমানে ইসরাইল সেনাবাহিনীতে দায়িত্ব পালন করছেন। মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে মিডলইস্ট মনিটর।

সর্বাধিক পঠিত