প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আঞ্চলিক ও অভিন্ন নদী ব্যবস্থাপনায় গুরুত্ব দিতে হবে: ড. কাজী খলীকুজ্জমান

সমীরণ রায়: [২] ঢাকা স্কুল অব ইকনোমিক্সের চেয়ারম্যান আরও বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মুক্তির জন্য আঞ্চলিক অভিন্ন নদী ব্যবস্থাপনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ জন্য ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যে সমঝোতা হয়েছে তার ভিত্তিতে নদী ব্যবস্থাপনায় জোর দিতে হবে।

[৩] তিনি বলেন, নদী রক্ষায় ১৯৯৯ সালের পানি নীতি এবং ২০১৩ সালের পানি অ্যাক্ট বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে নদী সমস্যার সমাধান করা জরুরি। জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব দেখছি। জলবায়ুর অভিঘাত পানি, কৃষি ও পরিবেশসহ অন্যান্য ক্ষেত্রেও পড়ে। তাই নদীর প্রবাহ অক্ষুন্ন রেখে এই ভয়ঙ্কর অবস্থা থেকে মুক্ত থাকতে হবে। অভিন্ন নদী ব্যবস্থাপনায় গঙ্গা-ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদীকে গুরুত্ব দিতে হবে। পাশাপাশি চীনের সাঙ্গু থেকে যমুনার যে প্রবাহ সে বিষয়েও পদক্ষেপ নিতে হবে।

[৪] রোববার আন্তর্জাতিক নদী দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত এক ওয়েবিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

[৫] ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, রাজনৈতিক দল, নাগরিক সমাজ, নদী রক্ষা আন্দোলনকারী সংগঠন এবং সাধারণ মানুষের ঐক্যের মধ্য দিয়ে একটা লড়াই গড়ে তুলতে হবে। নদী রক্ষার লড়াইকে রাজনৈতিক লড়াই হিসেবে গ্রহণ করতে হবে। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব

সর্বাধিক পঠিত