প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অ্যাসাঞ্জের বিচার চলছে গোপনে এবং সাংবাদিক নিয়ন্ত্রিত কেন :বৃটিশ মানবাধিকারকর্মী ক্রেইগ মিউরে

দেবদুলাল মুন্না: [২] লন্ডনের ওল্ড বেইলের ক্যাঙারু কোর্টে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের বিচার হচ্ছে। এই বিচার নিয়ে গোটা সাংবাদিকতা জগতের উদ্বিগ্ন হওয়ার কথা, সেখানে বিশ্বের প্রধান প্রধান সংবাদমাধ্যমগুলো প্রায় নিশ্চুপ। তিনি জানান, আদালতের প্রেস গ্যালারিতে মাত্র তিনজন প্রতিবেদক থাকছেন। তাঁদের একজন হলেন শিক্ষানবিশ প্রতিবেদক, আরেকজন ন্যাশনাল ইউনিয়ন অব জার্নালিস্টের প্রতিনিধি। ক্রেইগ মিউরে পাবলিক গ্যালারিতে বসে বিচারকাজ দেখছেন।

[৩] অ্যামনেস্টি, পেন, রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারসের মতো বিশ্বখ্যাত বেসরকারি সংস্থার কোনো প্রতিনিধিকে সেখানে সশরীর ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এমনকি অনলাইনেও শুনানির কার্যক্রম দেখতে দেওয়া হচ্ছে না।

[৪] যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যমগুলোর দিকে তাকালে দেখা যাবে, অ্যাসাঞ্জকে কাঠগড়ায় নবম দিনের মতো তোলার পর দ্য গার্ডিয়ান কোনো খবরই ছাপেনি। গোয়েন্দা সংস্থা এমআই সিক্সের ঘনিষ্ট দ্য টেলিগ্রাফও খবর ছাপেনি। দ্য ইনডিপেনডেন্ট ভেতরের পাতায় খুব ছোট করে একটা খবর ছেপেছে।

[৫] ক্রেইগ মিউরের তাই প্রশ্ন কেন এতো গোপনীয়তা ? তথ্য আলজাজিরা। আলাজাজিরার বরাতে ব্রাজিলের সাংবাদিক পেপে এসকোবার মঙ্গলবার বলেন, জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে সমঝোতার প্রস্তাব গোপনে দিয়ে ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন নির্বাচনের আগে অ্যাসাঞ্জের বিচার কাজ শুরু হয়েছে এবং তার জানাজানি হয়ে গেলে কি ট্রাম্পের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হতে পারে –এরকম ভয় থেকেই বিচার গোপনে হচ্ছে ?

সর্বাধিক পঠিত