প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] হবিগঞ্জে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে সংসদে বিল পাস, আমরা চাচ্ছি কোয়ালিটি এডুকেশন, বললেন শিক্ষামন্ত্রী

মনিরুল ইসলাম: [২] উচ্চ শিক্ষা সম্প্রসারণে হবিগঞ্জে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে সংসদে একটি বিল পাস হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি ‘হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বিল- ২০২০’ পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে সর্বসম্মতিত্রুমে পাস হয়।

[৩] বিল পাসের আলোচনায় অংশ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি বলেন, প্রতিটি জেলায় একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ প্রধানমন্ত্রী যে নিয়েছেন তা যুগান্তকারী উদ্যোগ।

[৪] তিনি বলেন, আমরা চাচ্ছি কোয়ালিটি এডুকেশন। যাতে আমাদের শিক্ষার মান আরো বৃদ্ধি পায়।
তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষার সেশনজট দূর করেছে।

[৫] আজ বৃহস্পতিবার ১০ সেপ্টেম্বর স্পীকার ড. ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের অধিবেশনে বিলটি নিয়ে আলোচনাকালে জনমত যাচাই ও বাছাই কমিটিতে পাঠানো প্রস্তাব করেন।

[৬] বিরোধী দলীয় সদস্য ফখরুল ইমাম, পীর ফজলুর রহমান, ব্যারিষ্টার রুমিন ফারহানা, মো হারুনুর রশীদ, শামীম হায়দার পাটোয়ারী আনীত প্রস্তাবগুলো কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। এরআগে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি বিলটি সংশোধিত আকারে পাসের সুপারিশ করা হয়।

[৭] এর আগে, গত ২৩ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১৯ এর চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রীসভা। পরে বিলটি গত ২৩ জুন সংসদে উত্থাপিত হলে পরীক্ষাপূর্বক প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। স্থায়ী কমিটি ৭ সেপ্টেম্বর সংসদে বিলটির প্রতিবেদন জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করে।

[৮] প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২৯ নভেম্বর হবিগঞ্জ নিউফিল্ডে এক জনসভায় জেলাবাসীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চারটি দাবি উপস্থাপন করেছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. আবু জাহির। এগুলো হলো- হবিগঞ্জে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা, শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলা বাস্তবায়ন এবং বাল্লা স্থলবন্দর।

সর্বাধিক পঠিত