প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ৯৯৯ এ কল পেয়ে দলবদ্ধ ধর্ষনের শিকার এক নারী ও তার স্বামীকে উদ্ধার করল পুলিশ

রাজু চৌধুরী : [২] চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানাধীন অক্সিজেন এলাকায় এক নারীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানায়, শনিবার ২৯ আগস্ট দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। এস,আই সুমন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ২৯ আগস্ট স্পেশাল ৩৪ নৈশ ডিউটি করাকালে দিবাগত রাত ২ টার দিকে ৯৯৯ এর মাধ্যমে থানা হতে সংবাদ পায় যে, অত্র থানাধীন মধ্যম শহীদ নগর শফি কমিশনার এর বাড়ীর পাশে জনৈক দেলোয়ার হোসেন’কে আটক করে কতিপয় লোকজন তার স্ত্রীকে অন্ধকারে নিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে এস আই সুমন ফোর্সসহ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছিলে কতিপয় লোকজন দৌড়ে পালানোর সময় ২ জন আটক করে এবং তাদের হেফাজত হতে দেলোয়ারকে উদ্ধার করে।

[৩] চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ এর বায়েজিদ বোস্তামী জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার পরিত্রাণ তালুকদার জানান, ভিকটিম এর দেয়া তথ্যমতে জানা যায়, ভিকটিম জান্নাত বেগম তার স্বামী দেলোয়ার সহ রৌফাবাদ হতে ওয়াপদা গেইট আসিয়া তাদের কাজ শেষে রৌফাবাদ বাসায় ফেরার পথে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে অক্সিজেন আলপনা ক্লাবের সামনে পৌঁছালে জনৈক শফি তাদের কে আটক করে নাম ঠিকানা জিজ্ঞাসা করে এবং স্বামী স্ত্রী নয় বলে সন্দেহ মূলক কথা বার্তা বলে। একপর্যায়ে শফি তার বন্ধু বাদশা, ইব্রাহিম, মোঃ জাবেদ ও রবিন’দের সংবাদ দিয়ে জড়ো করে ভিকটিম ও তার স্বামীকে রাত প্রায় ১১.৩০ ঘটিকার সময় হুজুরের বাড়ীতে নিবে বলে সিএনজি তে তুলে শহীদ নগর এলাকায় ঘুরাতে থাকে, রাত অনুমান ১.৩০ ঘটিকার দিকে দেলোয়ারকে সিএনজিতে আটক রেখে ভিকটিম জান্নাত বেগমকে মধ্যম শহীদ নগর সালমা কলোনীর ৫ম রুমে নিয়ে পর্যায়ক্রমে বর্ণিত ৫ জনে ধর্ষণ করে।

[৪] সুমন ও ফোর্সসহ সারারাত ব্যাপী অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিমকে উদ্ধার করে ভিকটিমের দেখানো ও শনাক্তমতে ৪ জনকে আটক করে। ধৃত আসামীগণ ঘটনার বিষয়ে অকপটে স্বীকার করে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। সম্পাদনা: আরাফাত

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত