প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অনির্বাণ আরিফ: আওয়ামী লীগের দালাল হয়ে একটি ধর্ষিত মেয়ের জন্য বিচার চাইছি

অনির্বাণ আরিফ: মনে করুন মারজিয়া প্রভা আজ যদি লীগ করতো বা লীগারের কেউ হতো কিংবা কোনো লীগার তার কাজিন হতো অথবা তার চাচার শ্বশুরের ঘরে একজন হাবাগোবা লীগারও থাকতো, দেখতেন ফেসবুকে বৈপ্লবের ঠেলায়, খুশিতে, নাচনে আপনি ফেসবুকে দাঁড়াতেই পারতেন না। ছাত্র ইউনিয়ন বা বাম সংগঠনের সবাই কী ফেরেশতা, তারা কী অন্যায় করতে পারে না? তারা সবাই কী সাধুÑ সন্যাসী, পুরোহিত, মোল্লা?
নারী নিপীড়ন বিরোধী আন্দোলন এদেশে কারা শুরু করে-ছাত্র ইউনিয়ন। অথচ আজ তাদের হাতে এবং তাদের নেত্রীর প্ররোচনায় নারী রেইপ হলো, তারা চুপ। একেবারেই কোনো শব্দ নেই। তোপখানা থেকে তেঁতুলিয়া ছুপ। টেকনাফ থেকে টালিগঞ্জ চুপ। বিষয়টা কী আপনাদের ভাবায় না? কাকের মাংস কাক এক জাতের হয়েও খায় না কিন্তু বাংলাদেশে বামের মাংস কেবল বাম নয় বামাতে খায়, জামায়াতে খায়, চীনাতে খায়, পাকিয়াতে খায়। একেবারে উদোর ভর্তি করে খায়। এদেশে শুধু ছাত্রলীগের অপকর্মকেই অপকর্ম বলা হবে। কিন্তু জামাতী, বামাতী, চীনাতী, পাকিয়াতিরা মিলে সারা দেশটাকে রেইপ করে দিলেও কোথাও কোনো অনুভূতি জাগবে না, খাড়াবে না, অর্গাজম হবে না। তসলিমা নাসরিন কেন বাম বৈপ্লবীদের চৌদ্দ গোষ্ঠী উদ্ধার করেন, সেটা এখন বুঝতে পারি। সামনে হয়তো আরও বেশি করে বুঝতে পারবো। আর কিছু বলার নেই। বৈপ্লবীদের হাতে রেইপ হওয়া মেয়েটি ন্যায় বিচার পাবে কিনা জানিনা তবে মেয়েটির পক্ষে শক্ত অবস্থান নেওয়া এ মুহূর্তে সবচেয়ে জরুরি। সবশেষে আমি আরিফ ওরফে লীগের দালাল হয়ে একটি ধর্ষিত মেয়ের জন্য বিচার চাইছি। বৈপ্লবীরা কী শুনতে পাচ্ছেন? ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত