প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জাতিসংঘে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা বিষয়ক বিশেষ দূত হলেন আইরিন খান

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [২] ২০১৪ সালে নিয়োগ পাওয়া ডেভিড কায়ি’র স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি। চলতি মাস থেকে তিন বছরের জন্য এ দায়িত্ব পালন করবেন।

[৩] তিনি প্রথম নারী, প্রথম বাংলাদেশী, প্রথম এশীয় এবং প্রথম মুসলিম হিসেবে ২০০১ সালে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ৭ম মহাসচিব হন।

[৪] সর্বশেষ ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ল অর্গানাইজেশনের মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করা সিলেটের মেয়ে আইরিন জুবাইদা খানের জন্ম ২৪শে ডিসেম্বর, ১৯৫৬ সালে।

[৫] তিনি ১৯৮০ সালে যোগ দেন জাতিসংঘের হাইকমিশনার ফর রিফিউজিসে লিগ্যাল অফিসার হিসেবে। ২১ বছর পর উপপরিচালক হিসেবে এই চাকরি বদল করেন।

[৬] আইরিন খান পড়াশোনার জন্য ইংল্যান্ডে যান এবং সেখানে ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটি অভ ম্যানচেস্টারে পড়ালেখা করেন।

[৭] হার্ভার্ড ল স্কুল থেকে আন্তর্জাতিক আইন এবং মানবাধিকার নিয়ে গবেষণা করেন এবং ১৯৭৮ সালে স্নাতক লাভ করেন।

[৮] ২০০২ সালে ফোর্ড ফাউন্ডেশন ফেলোশিপ এবং ২০০৬ সালে সিডনি শান্তি পুরস্কার লাভ করেছেন।

[৯] ২০০৭ সালে গেন্ট বিশ্ববিদ্যালয় তাকে প্রাতিষ্ঠানিক সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে।

[১০] ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন চ্যান্সেলর নির্বাচনের জন্য যে দু’জন ব্যক্তি মনোনিত হন, তার মধ্যে তিনি একজন। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত