প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] স্বাধীনতা দিবসের আগে ছাঁটাই ৪৮ এয়ার ইন্ডিয়া পাইলট

তন্নীমা আক্তার : [২] স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রক্রিয়া শুরু এয়ার ইন্ডিয়াতে। আর প্রথম দফায় কোপ পড়ল পাইলটদের উপরে। গত বৃহস্পতিবার এক ধাক্কায় ৪৮ জন কর্মীকে ছাঁটাইয়ের নোটিশ ধরাল রাষ্ট্রায়ত্ত এই বিমান সংস্থাটি। কর্মচ্যুত ব্যক্তিরা এয়ার ইন্ডিয়ার এয়ারবাস ৩২০ বিমান বহরের পাইলট ছিলেন। ম্যানেজমেন্টের এই সিদ্ধান্ত ঘিরে এয়ার ইন্ডিয়ার অন্দরে আলোড়ন পড়ে গেছে।এইসময়

[৩] প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, যে ৪৮ জন এয়ার ইন্ডিয়া পাইলটের চাকরি গিয়েছে গত বছর তাঁরা ইস্তফা দিয়েছিলেন। কিন্তু নিয়ম অনুসারে ছ’মাসের নোটিশ পিরিওডের সময়ের মধ্যে ইস্তফাপত্র প্রত্যাহার করে ফের কাজে যোগ দেন। তাঁদের সেই আবেদন প্রথমে গ্রহণ করেছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। অবিলম্বে এই নির্দেশিকা কার্যকর হবে বলে কর্তৃপক্ষ জানায়। ফলে রাতারাতি কাজ হারান ৪৮ জন পাইলট।

[৪] কর্মী ছাঁটাইয়ের নেপথ্যে এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষের যুক্তি, সংস্থার অর্থনৈতিক বাধ্যবাধকতা এবং করোনার কারণে বাণিজ্যিক কাজকর্ম বন্ধ থাকায় কর্মী সংকচের মতো পদক্ষেপ নিতে হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘করোনা পরিস্থিতির আগে যে সংখ্যক উড়ান চলাচল করত এখন তা কমে ভগ্নাংশে নেমে এসেছে। এবং সাম্প্রতিক ভবিষ্যতে পরিস্থিতির উন্নতির কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। ফলে কোম্পানি বিপুল নিট লোকসানের মধ্যে দিয়ে চলেছে। ফলে বেতন দেওয়ার ক্ষমতা নেই।’

[৭] এদিকে, চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের খবর কর্মীদের জানানোর পর্যন্ত বোধ করেনি এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ। ফলে ছাঁটাই পাইলটদের মধ্যে কয়েকজন অন্যান্য দিনের মতো শুক্রবারও বিমানের ককপিটে বসেন।

[৮] এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষের এই আচরণকে ‘বেআইনি’ আখ্যা দিয়েছে পাইলটদের সংগঠন ইন্ডিয়ান কমার্শিয়াল পাইলটস্ অ্যাসোসিয়েশন। অবিলম্বে এই ইস্যুতে এয়ার ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান তথা ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাজীব বনশলের হস্তক্ষেপ দাবি করেছে তারা।

[৯] করোনা মহামারীর জেরে ভারত এবং বিশ্বজুড়ে উড়ান চলাচালে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। যার জেরে ব্যাপক ধাক্কা খেয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহন শিল্প। গত ২৫ মে থেকে ভারতে ঘরোয়া উড়ান পরিষেবা শুরু হলেও নানা বিধিনিষেধ মেনে চলতে হচ্ছে। এদিকে, আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা গত ২৩ মার্চ থেকে এখনও বন্ধ আছে। এই পরিস্থিতিতে খরচ কমাতে নানা পদক্ষেপ করেছে ভারতীয় বিমান সংস্থাগুলি।

[১০] রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ার ইন্ডিয়াকে বিক্রির জন্য দীর্ঘদিন থেকে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারীর জেরে সেই চেষ্টা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে। লোকসানে ধুঁকতে থাকা এয়ার ইন্ডিয়ায় কর্মী ছাঁটাইয়ের ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছিল গত জুলাই মাসের মাঝামাঝি। একসঙ্গে ৪৮ জন পাইলটকে ছাঁটাই করা তারই অঙ্গ বলে মত পর্যবেক্ষক মহলের।

সর্বাধিক পঠিত