প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কামারখন্দে গৃহবধূ ও শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : [২] সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে হত্যার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূ ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ দুটি ঘটনায় সিরাজগঞ্জ আদালত ও কামারখন্দ থানায় পৃথক মামলা দায়ের করেছেন গৃহবধূ ও প্রতিবন্ধী ওই তরুণীর মা।

[৩] শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণী ধর্ষণ মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত কয়েক বছর ধরে প্রতিবন্ধী ওই তরুণী পাশের গ্রাম বড়ো পাইকোশার ইয়াকুব আলীর বাড়ীতে সুতা তোলার কাজ করে। কাজ করে যে পারিশ্রমিক পান তা দিয়ে বৃদ্ধ বাবা-মাকে নিয়ে কোন মতে দিনাতিপাত করেন। ইয়াকুবের বাড়ীর পাশের একটি তাত কারখানায় কাজ করে উপজেলার খামার পাইকোশা গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে এনামুল (৩৬)। এনামুল ও প্রতিবন্ধী ওই তরুণী পাশাপাশি কাজ করায় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এমতাবস্থায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে প্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে বিয়ের কথার বলে এনামুল ও তার সহযোগী একই এলাকার আজাদুল, মোতালেব, রইজ উদ্দিন ও মোমিন মিয়া মিলে ওই কিশোরীকে এনামুলের বাড়ীতে রেখে চলে যায় সহযোগীরা। মধ্যরাতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার প্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে এনামুল। পরের দিন শুক্রবার আবারও এনামুল প্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে ওই তরুণীর পরিবারের পক্ষ থেকে তরুণীকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে বিয়ে করবে না বলে জানায় এনামুল। এক পর্যায়ে সহযোগীদের সহায়তায় পালিয়ে যায় এনামুল। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ প্রতিবন্ধী ওই তরুণীকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় প্রতিবন্ধী ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে শনিবার সন্ধ্যায় এনামুল সহ ৫ জনের নামে কামারখন্দ থানায় মামলা দায়ের করেন।

[৪] প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তরুণীর বৃদ্ধ বাবা-মা। এদিকে উপজেলার পাইকোশা পশ্চিম পাড়া গ্রামে হত্যার ভয় দেখিয়ে তিন সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের এক তরুণের বিরুদ্ধে।

[৫] গৃহবধূকে ধর্ষণ মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, একই গ্রামের ইসাহাকের ছেলে আবুল কাশেম (২৪) ওই গৃহবধূকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দেয়। বিষয়টি ওই গৃহবধূ তার স্বামীকে জানালে তার স্বামী কাশেমকে শাসন করে দেন। রবিবার (২ আগস্ট) ওই গৃহবধূর বাড়ীর সবাই একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যায় এবং তার স্বামী নামাজে যান। এমতাবস্থায় রাত ৯টার দিকে বাড়ীতে একা পেয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে ওই গৃহবধূকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে কাশেম।

[৬] এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে বুধবার (৫ আগস্ট) সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ মামলা দায়ের করেন। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর স্বামী জানান, আমার স্ত্রীর সাথে যে ঘটনা ঘটেছে। আমি এর বিচার চাই।

[৭] কামারখন্দ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আসামী পলাতক রয়েছে, গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে শুনি গৃহবধূ সিরাজগঞ্জ আদালতে মামলা করেছেন। আদালত থেকে মামলার কাগজপত্র পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান ওসি।

সর্বাধিক পঠিত