প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কোভিড-১৯ আগে আগে যাচ্ছে, বাংলাদেশ পিছে পিছে যাচ্ছে : অধ্যাপক নজরুল ইসলাম

শাহীন খন্দকার : [২] এই প্রেক্ষিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এবং ভাইরোলজিস্ট অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলছেন, এখন সংক্রমণ আরো বেড়ে যাবে। যে অবস্থা তাতে আমরা হিমশিম খাচ্ছি। বাংলাদেশের একটা জেনারেল কন্ডিশন হলো, ভাইরাসটা আগে আগে যাচ্ছে পিছে পিছে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা কি চ্যালেঞ্জ সামাল দিতে পারবে ? এতে আমাদের ভুগতে হবে। অনেক মানুষ সংক্রমিত হয়ে যাবে। মানুষ সংক্রমিত হয়ে গেলে তাদের হাসপাতালের বেড বাড়াতে হবে, সুবিধা বাড়াতে হবে। সেদিক থেকেও আমরা খুব বেশি অগ্রগতি সাধিত করতে পারি নাই,বললেন অধ্যাপক নজরুল ইসলাম।

[৩] এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেয়া তথ্যে বাংলাদেশে কোভিড-১৯ রোগীদের জন্য এখন পর্যন্ত ১১২টি হাসপাতালে বেড রয়েছে ১৩ হাজার ৯শ ৮৪টি। আর সারাদেশের কোভিড রোগীদের জন্য বরাদ্দ আছে সবমিলিয়ে ৪০০টি আইসিইউ বেড,৩০০টি ভেন্টিলেটর আর ১১২টি ডায়ালাইসিস ইউনিট।একটি বেসরকারি হাসপাতালের এবং জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী বলেন, যখন আরো কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার প্রয়োজন তখন সবকিছু খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত মহামারি পরিস্থিতি আরো জটিল করছে।

[৪] আমরা ইতোমধ্যে দেখেছি ঢাকাতে একটি আইসিইউ বেড পাওয়ার জন্য করোনা রোগীর আত্মীয় স্বজনেরা পাগলের মতো ছোটাছুটি করছে, কিন্তু পাচ্ছে না।” এমন অনেক অভিযোগ গণমাধ্যমে এসেছে যে রোগী আইসিইউ বেড না পেয়েই মারা যাচ্ছে। তার মানে হচ্ছে যে, যখন এই সংক্রমণ বেড়ে যাবে। আমাদের এই নাজুক স্বাস্থ্য এবং চিকিৎসা ব্যবস্থা এই চ্যালেঞ্জটা বহন করতে পারবে কিনা এটি নিয়ে আমি প্রবলভাবে সন্দিহান।

[৫] অঘোষিত লকডাউন তুলে দেয়ার পর উদ্বেগের মূল কারণ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর বৃদ্ধির পরিসংখ্যান। শনিবার (৫জুন) পর্যন্ত বাংলাদেমের চিএ উল্লেখ্য করা হলো : গত ২৪ ঘন্টায়৫০টি ল্যাবেমোট নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৪,৬৪৫টি, পরীক্ষা হয়েছে ১৪,০৮৮টি এবং ২,৮২৮জন নতুন রোগীসহ মোট সনাক্ত ৬০,৩৯১ জন।

[৬] ডা. নজরুল বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় সনাক্তের হার ২০.০৭%। সুস্থ হয়েছেন ৬৪৩ জন এবং এপর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১২,৮০৪ জন। সনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১.২০%। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জনসহ এপর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন মোট ৮১১ জন এবং সনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১.৩৪% বলেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত