প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনলাইন ক্লাসে বাধা মনস্তাত্ত্বিক: শিক্ষামন্ত্রী

সিরাজুল ইসলাম : [২] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ভার্চুয়াল আলোচনায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপুমনি আরও বলেন, ব্যাপক হারে ডিজিটালাইজেশন হয়েছে সরকারি- বেসরকারি সবক্ষেত্রে। কিন্তু উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে, বিশেষ করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যে ডিজিটালাইজেশন প্রয়োজন ছিল, সেটা হয়নি।

[৩] দীপু মনি বলেন, আজকে যদি আমরা বলি, আমি অনলাইনে পড়াতে পারি না, এটা গ্রহণযোগ্য না। আজকে যদি আমি বলি, আমার অ্যাক্সেস নাই, তাহলে এটা গ্রহণযোগ্য না। আমার বলতে হবে, কার অ্যাক্সেস নেই, কতদিনের মধ্যে অ্যাক্সেস দেওয়া যায়, কেন অ্যাক্সেস নেই, কোথায় সমস্যা, কীভাবে আমরা সেই সমস্যা সমাধান করতে পারি।

[৪] বিশ্বব্যাপী নতুন করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্ট বাস্তবতায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পাঠদান চালু করার উপায় খুঁজতে ওই আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম। তিনি বলেন, জরিপে দেখেছি, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ১৬ বিভাগের ৬০ ভাগ শিক্ষার্থী অনলাইনে পড়াশোনা করতে আগ্রহী। ৪০ ভাগ নানা ধরনের সমস্যার কথা বলছেন। শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের যন্ত্রপাতি ও ইন্টারনেটের ব্যবস্থা করার বিষয় চলে আসবে। সবগুলো বিশ্ববিদ্যালয় ইকুইপড কি না, সেটা দেখতে হবে।

[৫] বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরীন আহমাদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খুললেও শিক্ষার্থীদের আসতে বলতে পারব না। ক্লাস শুরু করার ক্ষেত্রে ইন্টারনেট অ্যাকসেস সামর্থ্যের বিষয় দেখতে হবে। মুখোমুখি পড়ানো আর অনলাইনে পড়ানোর মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। প্রশিক্ষণের দরকার আছে। সিলেবাসটাও রিডিজাইনের প্রশ্ন আসবে।

[৬] আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক দেলাওয়ার হোসেন, কাবেরী গায়েন, তানিয়া হক, আইনুল ইসলাম ও দেবাশীষ কুন্ডু।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত