প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রোহিঙ্গাদের বৃহত্তম আশ্রয় শিবির কুতুপালং লকডাউন

ডেস্ক রিপোর্ট : [২] গত ২ দিনে ৩ রোহিঙ্গার শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর, সেখানকার ৫ হাজার রোহিঙ্গাকে লকডাউনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। শরণার্থী ক্যাম্পগুলোতে গাদাগাদি করে থাকা লাখো রোহিঙ্গার মধ্যে বৃহস্পতিবারই প্রথম একজন কোভিড-১৯ রোগী ধরা পড়ে।

[৩] শুক্রবার বিকেলে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) মো. মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, ‘ক্যাম্পের একজন রোহিঙ্গার করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। আক্রান্ত ব্যক্তি ও তার পরিবারের ৬ জনকে মেডিসিন স্যান্স ফ্রন্টিয়ার্স (এমএসএফ) হাসপাতাল আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। আক্রান্ত পরিবার ওই ক্যাম্পের এফ ব্লকের বাসিন্দা। এফ ব্লকের ১ হাজার ২৭৫টি ঘর রেড মার্ক করে লাল পতাকা টানিয়ে লকডাউন করা হয়েছে।

[৪] কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডা. মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, আক্রান্তসহ তাদের পরিবারকে আইনসোলেশনে রাখা হয়েছে। পাশাপাশি ক্যাম্পে যাতে করোনা ছড়িয়ে না পড়ে সেই প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এর আগে আড়াইশর বেশি রোহিঙ্গার করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

[৫] উখিয়া কুতুপালং ক্যাম্পের ইনচার্জ মোহাম্মদ মাহফুজার রহমান বলেন, আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

[৬] কক্সবাজার স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, শুক্রবার পর্যন্ত জেলায় ৩ রোহিঙ্গাসহ ১৫১ জনের দেহে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

[৭] আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের নেতা সৈয়দ উল্লাহ বলেন, ক্যাম্পে করোনা আক্রান্তের খবরে লোকজন ভয়ে আছে। ঘিঞ্জি বসতি হওয়ায় ঝুঁকিটাও বেশি। এ ভাইরাস থেকে নিজেকে কিভাবে রক্ষা করা যায়, তা অনেকে জানেনই না।

[৮] কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বলেন, করোনা রোধে ক্যাম্পে সামাজিক দূরত্ব, লকডাউন নিশ্চিতে পুলিশ টহল বৃদ্ধি করা হবে। বাংলাট্রিবিউন, সমকাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত