প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনার বিস্তার রোধে মহামারি ঘোষণাসহ কঠোর হওয়ার পরামর্শ আইনজ্ঞদের

এস এম নূর মোহাম্মদ : [২] করোনার বিস্তার রোধে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয় ২৬ মার্চ থেকে। এরপর থেকে মানুষ ঘরমুখো হলেও এখন অনেকেই ঘরে থাকতে চাইছেন না। এদিকে বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশেও বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। তাই করোনা নিয়ন্ত্রণে রাখতে মহামারি ঘোষণা করে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন অনেকে।

[৩] সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আদেশ নাগরিকদের উপর প্রয়োগ করলে চ্যালেঞ্জের মুখে পরতে হতে পারে। সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৮ কে সকল আইনের উপর প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। এ আইনের ৫ ধারায় স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালককে গণজমায়েত, বাজার, স্টেশন ইত্যাদি বন্ধে ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। তাই সংক্রামক আইন অনুসারে যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে নির্দেশনা জারির অনুরোধ করেন তিনি।

[৪] ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ মাহমুদ বাশার বলেন, সংক্রামক আইনের ১১ ধারা অনুসারে সরকারের ক্ষমতাপ্রাপ্ত ব্যক্তি যথাযথভাবে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য যে কোন এলাকা লকডাউন তথা মানুষ ও যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। আর কোন ব্যক্তি নির্দেশনা ভঙ্গ করলে তিন মাস কারাদণ্ড বা ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন। তিনি বলেন, জীবন ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি থাকলে প্রশাসন ফৌজদারি কার্যবিধি অনুসারে ১৪৪ ধারাও জারি করতে পারে।

[৫] ব্যারিস্টার শিহাব উদ্দিন খান বলেন, যে কোন জাতীয় দুর্যোগ বা মহামারি হলে দুর্যোগ ব্যববস্থাপনা আইন ২০১২ অনুসারে ব্যবস্থা নেয়া যায়। এই আইনের ৩৬ ধারায় অনুসারে কোন ব্যক্তি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার কাজে বাধা প্রদান করলে অনূর্ধ্ব ১ বৎসর সশ্রম কারাদণ্ড অথবা অনধিক এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে। ৪৩ ধারায় বলা হয়েছে কোন ব্যক্তি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত জরুরি নির্দেশনা অমান্য করলে অনূর্ধ্ব ৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে অনূর্ধ্ব ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে।

[৬] অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, করোনা থেকে রেহাই পেতে সবাইকে ঘরে থাকার বিকল্প নেই। সাধারণ মানুষ যাতে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাফেরা করতে না পারে সে জন্য করোনাকে বর্তমান অবস্থায় মহামারি ঘোষণা করতে হবে। দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারায়ও এ বিষয়ে শাস্তির বিধান রয়েছে বলে জানান তিনি। সম্পাদনা : রাশিদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত