প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কোভিড-১৯: পবিত্র শবে বরাতে ঘরে ইবাদাতের তাগিদ আলেমদের

ইসমাঈল আযহার: [২] বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) পবিত্র শবে বরাত। অন্যান্য বছরের মতো এবারও যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হবে এই রাতটি। হিজরি সাবান মাসের ১৫ তারিখের শবে বরাতে আল্লাহ আগামী বছরের রিজিক নির্ধারণ করেন।

[৩] মুসলমানরা এ রাতে স্রষ্টার অশেষ কল্যাণ কামনা করে বিশেষ নামাজ, কোরআন পাঠ, জিকির ও অন্যান্য ইবাদত পালন করেন। পুরো রাতটি অতিবাহিত করেন ইবাদতের মধ্য দিয়ে।

[৪] অন্যান্য বছর মসজিদে গিয়ে সম্মিলিতভাবে ইবাদাত করলেও এবার ঘরে বসে ইবাদাতের তাগিদ দিয়েছেন ধর্মীয় আলেমরা।

[৫] এব্যাপারে মুগদা মারকাযুস সালাম ‘মাদ্রাসা’র মুহতামিম ও আওয়ার ইসলাম টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক ও একাধিক গ্রন্থ প্রণেতা মাওলানা মুফতি হুমায়ুন আইয়ুব বলেন, শবে বরাতের আমল মূলত বাড়িতে করাই নিয়ম। ইসলামে সব নফল ইবাদাত ঘরে আদায় করার কথা বলা হয়েছে। তিনি বলেন, ঘরে পরিবারের সব সদস্যদের নিয়ে নফল নামাজ, জিকির ও কোরআন তেলাওয়াত করবে এবং বাচ্চাদেরকে শেখাবে।

[৬] রুপগঞ্জ সিরাজুল উলুম আরাবিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস, লেখক ও গবেষক মুফতি আমিমুল ইহসান বলেন, শবে বরাতের ইবাদাত বাড়িতে বসেই করবে। কারণ এটি রাষ্ট্রের আইন করা। তিনি কোরআনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, সরকার যেমনই হোক না কেন রাষ্ট্রের আইন মানা জরুরি।

[৭] আমিমুল ইহসান বলেন, যেহেতু করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে। রাসুল স. বলেছেন, তোমরা মহামারি আক্রান্ত এলাকায় যাবে না। অর্থাৎ স্যোশাল ডিস্টেন্স রক্ষা করার কথা বলা হয়েছে। অতএব অন্যদের জীবন হুমকির মুখে না ফেলে আমাদের ঘরে বসেই ইবাদাত করতে হবে এবং এটা শরিয়াতের সঙ্গে মোটেও সাংঘর্ষিক নয়।

[৮] বর্তমান পরিস্থিতিতে বাড়িতে শবে বরাতের ইবাদাত করতে হবে, এ ব্যাপারে মতামত দিয়েছেন দেশের বড় বড় দ্বীনি প্রতিষ্ঠান থেকে ফারেগ একাধিক তরুণ আলেম।

[৯] এসব আলেম হলেন, মাওলানা মুফতি এইচ এম  আবু বকর, মাওলানা মুফতি বাকিবিল্লাহ, মাওলানা আব্দুল্লাহ আফফান, মাওলানা বেলায়েত হুসাইন, মাওলানা মাহিন মুহসিন, মাওলানা জামিল আহমদ, মাওলানা নাইম খান উসামা ও মাওলানা সোলাইমান।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত