প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]হপকিনস ইউনিভার্সিটির হিসাবে বিশ্বের ১০ দেশে ৮১ ভাগ করোনা রোগী

দেবদুলাল মুন্না: [২] দক্ষিণ এশিয়াতেও এর অবস্থান বেশ দুর্বল।

[৩] গত বুধবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যায়ের গবেষকরা এ তথ্য দেন। খবর রয়টার্সের।

[৪] ভারতের পদ্মভূষণপ্রাপ্ত চিকিৎসক জি পি নাগেশ্বর রেড্ডি হিন্দুস্থান টাইমসকে বলেন, বিশ্বজুড়ে ৮ লাখ ৫৯ হাজার ৮৩২ জনের শরীরে নতুন করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, চীন থেকে ইউরোপ ঘুরে ভাইরাসটি দক্ষিণ এশিয়ায় এসেছে। এর মধ্যে জিনগত পরিবর্তনের কারণে করোনা দুর্বল হয়েছে।

[৫] গতকাল দৈনিক প্রথম আলো অনলাইনে ভার্সনে এ নিয়ে একটি বিশ্লেষণধর্মী রিপোর্ট প্রকাশ করে।এতে দেখা যায়, করোনা শনাক্ত হওয়া রোগীদের মধ্যে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ায় আছে মাত্র শূন্য দশমিক ৪৩ শতাংশ। ইইরোপে শতকরা ৫২, উত্তর আমেরিকায় শতকরা ২৩ ও এশিয়ায় শতকরা ২১ ভাগ এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এশিয়া অঞ্চলের আবহাওয়াও কাজ করেছে করোনার প্রতিকূলে।

[৬]ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) গবেষক কাশিম বুখারি সিএনএনকে বলেন, আক্রান্ত দেশগুলোর গড় তাপমাত্রা ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসে আর্দ্রতা ছিল ৪ থেকে ৯ গ্রাম। আর এশিয়ার যে দেশগুলোয় বর্ষা মৌসুম আছে, সেখানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হয়তো কম হবে। কারণ এই অঞ্চলে প্রতি ঘনমিটারে আর্দ্রতার পরিমাণ ১০ গ্রাম পর্যন্ত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত