প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পাসপোর্ট পেতে গ্রাহকদের ভোগান্তি অধিদপ্তর চায় না, দ্রুত সমস্যার সমাধান করা হবে, বললেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

লাইজুল ইসলাম : [২] গেলো কয়েকমাস ধরে অভিযোগ শোনা যাচ্ছে পাসপোর্ট সময়মত পাওয়া যাচ্ছে না। এমন পরিস্থিতি কয়েকজন পাসপোর্ট গ্রহিতার সঙ্গে কথা হয়। তারা বিভিন্ন কাগজপত্র দিয়ে প্রমাণ দেন, পাসপোর্ট পাওয়ার কথা প্রায় দুই মাস আগে কিন্তু তা এখনো হাতে আসেনি।

[৩] সালেক হাওলাদার নামের এক ব্যাক্তি বলেন, প্রায় দুই মাস আটকে আছে আমার পাসপোর্ট। চেক করলেই বলছে পারসোনালাইজেশন। এমন অবস্থায় করার কিছুই নেই আমাদের।

[৪] শুভ নামের আরেক পাসপোর্ট গ্রহিতা বলেন, আমার পাসপোর্ট এই মাত্র নিলাম। প্রায় দুইমাসের উপরে পারসোনালাইজেশন বলে আটকে ছিলো। পরে বিভিন্ন ভাবে যোগযোগ করে পেলাম।
[৫] নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, আমার পাসপোর্ট আটকে আছে। সব ধরনের কাগজ তাদের হাতে দেওয়া হয়েছে। এসবি, ডিএসবি রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনো আটকে আছে।

[৬] এদিকে, বিভিন্নভাবে শোনা যায় সারা দেশেই মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের জন্য অপেক্ষায় গ্রাহকরা।

৭] এ বিষয়ে অবশ্য একমত পোষন করেছেন ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ। তিনি বলেন, দুইটি কার্যক্রম এক সঙ্গে চালাতে গিয়ে কিছুটা ঝামেলায় পরেছি আমরা।

[৮] তিনি আরো বলেন, আমাদের লোকবল বাড়েনি। কিন্তু কাজের পরিধি বেড়েছে। পুরাতন তিনটা মেশিনের পাশাপাশি নতুন ই-পাসপোর্টের মেশিনগুলোও অপারেট করতে হচ্ছে। গ্রাহকদের ভোগান্তি হোক কখনো অধিদপ্তর চায় না। তাই দ্রুত এই সমস্যার সমাধান করা হবে।

[৯] এদিকে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাসপোর্ট অধিদপ্তরের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা বলেন, দুইটা কাজ এক সঙ্গে চালাতে গিয়ে সবারই একটু ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে। তারপরও আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু লোকবল বাড়ালে হয়তো এসব সমস্যা থাকতো না।

[১০] তারা আরো বলেন, যদি কারো পাসপোর্ট দুই মাস ধরে আটকে থাকে তবে আমাদেরকে জানালে দ্রুত প্রিন্ট করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত