প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘দেশদ্রোহীরা কুকুরের মতো মরবে!’ শাসালেন ফের ভারতের বিজেপি মন্ত্রী রঘুরাজ,

রাশিদ রিয়াজ : রঘুরাজকে বলতে শোনা যায়, ‘কুত্তে কি মউত মারে জায়েঙ্গে ইয়ে লোগ জো দেশদ্রোহী কা কাম করতে হ্যায়।’ যার মর্মার্থ, দেশ বিরোধী কাজকর্ম করলে, কুত্তার মতোই মরতে হবে। তিনি আরও বলেন, দেশদ্রোহীদের গুলি করে মারার নির্দেশ পুলিশকে দেওয়া রয়েছে। অতি দেশভক্তির প্রমাণ দিতে বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের বেপরোয়া বাণী চলছেই। সেই তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন যোগী আদিত্যনাথ মন্ত্রিসভার অন্যতম সদস্য রঘুরাজ সিং। অবশ্য বিজেপির এই মন্ত্রী অতীতেও এমন বেফাঁস মন্তব্য করে, দলকে বিড়ম্বনায় ফেলেছেন। দিন পনেরো আগেই রঘুরাজ বিরোধীদের উদ্দেশে তোপ দেগে বলেছিলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে স্লোগান তুললে, জ্যান্ত কবর দেব।’ এ বার তাঁর যে ভিডিয়োটি সোশ্যালে ঘুরছে, সেখানে উত্তরপ্রদেশের শ্রমমন্ত্রী রঘুরাজ সিংকে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘দেশদ্রোহীরা কুকুরের মতো মরবে।’

বিজেপি মন্ত্রীর আগুনে-ভাষণের শেষ এখানেই নয়। আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়-এর নাম বদলে দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। রঘুরাজের দাবি, আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বদলে করা হবে, হিন্দুস্তান বিশ্ববিদ্যালয়। আলিগড়ের আত্রুলি শহরে ‘গঙ্গা যাত্রা’র আগমন উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে এই গরমাগরম ভাষণ দিচ্ছিলেন যোগী সরকারের শ্রমমন্ত্রী। তাঁর সেই বিতর্কিত বক্তব্যের ভিডিয়ো সোশ্যাল সাইটের সৌজন্যে মুহূর্তে ভাইরাল হয়।

রঘুরাজের কথায়, ‘গুণ্ডাগিরি যথেষ্ট হয়েছে। আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের গুণ্ডাদের বলতে চাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বদলে হিন্দুস্তান বিশ্ববিদ্যালয় করে দেওয়া হবে।’ কেন নাম বদলের এই ভাবনা, সে ব্যাখ্যাও দেন। ‘আমরা চাই, বিশ্ববিদ্যালয় হিন্দুস্তানির জন্ম দিক, পাকিস্তানির নয়।’

আমুর পড়ুয়াদের উদ্দেশে বলেন, ‘যদি ওঁরা হিন্দুস্তানে থাকতে চান, তা হলে হিন্দুস্তানি হয়েই থাকতে হবে। পাকিস্তানি হয়ে এখানে থাকা যাবে না। ভারতে থেকে ক্রমাগত ভারতের বিরোধিতা করতে দেব না।’

সর্বাধিক পঠিত