প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আইনবিজ্ঞানী মাইকেল এ বেকার মনে করেন, আইসিজের আদেশে জাতিসংঘের তদন্তকর্মীদের মিয়ানমারে ঢুকতে দেওয়ার অনুমতি নেই

দেবদুলাল মুন্না: এএক্সএন টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এ কথা বলেন। তার মতে, মিয়ানমারের সরকারকে নির্দেশ দেওয়ার জন্যও আদালতের কাছে গাম্বিয়া আবেদন জানিয়েছিল।

রোহিঙ্গা নিধন ঠেকাতে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলতে মিয়ানমারকে আইসিজে আদেশ দিবে গাম্বিয়া শুধু এটাই চায়নি। গাম্বিয়া চেয়েছে যে আদালত থেকে সুনির্দিষ্টভাবে বলে দেয়া হোক মিয়ানমারের এই কর্মকাণ্ডকে গণহত্যা, বিচারবহির্ভূত হত্যা, যৌন সহিংসতা এবং গ্রামগঞ্জ ও বাড়িঘর ধ্বংস করা হিসেবে আখ্যায়িত করা যাবে। আদালত গাম্বিয়ার শেষোক্ত আবেদন গ্রহণ করেননি।

আইসিজে আদেশে বলা হয়নি যে, মিয়ানমার ১৯৪৮ সালের জেনোসাইড কনভেনশন লঙ্ঘন করেছে কি না ।

২০১৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত যেসব রোহিঙ্গা নিধন হয়েছে, তাকে আইনি সংজ্ঞায় গণহত্যা হিসেবে গণ্য করা হবে কি না।

গাম্বিয়া মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা চালানোর যে মামলা করেছিল এর ফলে জাতিসংঘের গুরুত্বপূর্ণ বিচারিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে) ২৩ জানুয়ারি অন্তবর্তীকালীন পদক্ষেপ গ্রহণের আদেশ দিয়েছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত