প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চুক্তি থেকে বাদ পড়লেও আর্থিক ক্ষতি হবে না, চোখ টাটাবে ধোনির সম্পদের বিবরণ শুনে

আক্তারুজ্জামান : ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। ছয় মাস জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যায়নি। তাই বোর্ডের পক্ষ থেকে সরাসরি বাতিল করা হয়েছে ধোনির সঙ্গে চুক্তি। বাদ পড়ায় বার্ষিক ৭ কোটি টাকা উপার্জন হারালেন তিনি। তবে এতে ধোনির আর্থিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা প্রায় নেই-ই। কেননা ইতিমধ্যে নিজে বেশ কিছু ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করে রেখেছেন ভারতের বিশ্বকাপ জেতানো এ অধিনায়ক।

২০১৯ সালে কোনও টেস্ট না খেললেও ধোনির উপার্জন বেড়েছে। ২০১৮ সালে ধোনির সম্পত্তির পরিমাপ ছিল ১০১ কোটি ৭৭ লাখ রুপি। একবছর পরে সেই সম্পত্তি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৫ কোটি ৯৩ লাখ। কীভাবে ধোনির সম্পত্তি উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে? ক্রিকেটার হওয়ার পাশাপাশি ধোনি একজন সফল ব্যবসায়ীও। নিজের ব্র্যান্ড কাজে লাগিয়ে ধোনি একাধিক ব্যবসা চালু করেছেন।

সেভেন নামে ধোনির স্পোর্টস গার্মেন্টস কোম্পানি আছে। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে চালু হয়েছিল এই ব্র্যান্ড। প্রথমে ধোনিকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। তবে ধোনি গোটা সংস্থাটিই কিনে নেন। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হওয়ার পাশাপাশি মালিকও তিনি।

শারীরিকভাবে ফিট থাকতে ক্রীড়াঙ্গনের তারকাদের অন্যতম ভরাস স্পোর্টসফিট। যার মালিকানা ধোনি নিজেই। গোটা ভারতে ধোনির জিম সংস্থা স্পোর্টস ফিট এর ২০০টিরও বেশি আউটলেট রয়েছে। কোম্পানির নাম স্পোর্টসফিট ওয়ার্ল্ড প্রাইভেট লিমিটেড। ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দল চেন্নাইয়িন এফসি নামের একটি ফুটবল ক্লাবেরও মালিক ক্যাপ্টেন কুল। ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবলও বেশ পছন্দ করেন।

মাহি রেসিং টিম ইন্ডিয়া- বাইক-প্রীতির কথা কারোর অজানা নয়। তারকার বাইকের সংগ্রহ দেখলে চমকে উঠতে হয়। আরও ইন্টারেস্টিং ঘটনা হল, সুপার স্পোর্টস ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে ধোনির নিজস্ব রেসিং টিমই রয়েছে। বিখ্যাত অভিনেতা নাগার্জুনের সঙ্গে এই দলের মালিক ধোনি।

হকি টিম- ক্রিকেট, ফুটবল, রেসিং কারের পাশাপাশি হকিতেও ধোনির বিনিয়োগ করেছে। রাঁচির হকির দল রাঁচি রেইজ-এর মালিক তিনি।

মাহি হোটেল- অনেকেই ধোনির হোটেল ব্যবসা সম্পর্কে অবহিত নন। ধোনির নিজস্ব হোটেল রয়েছে। নাম হোটেল মাহি রেসিডেন্সি। গোটা দেশে একমাত্র ঝাড়খণ্ডেই এই হোটেল রয়েছে। অন্য কোনও ফ্র্যাঞ্চাইজিও নেই।

এনডোর্সমেন্ট- একাধিক পণ্য সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর তিনি- পেপসি, স্টার, গো ড্যাডি, বোস, স্নিকার্স, ভিডিওকন, বুস্ট, ওরিয়েন্ট ইলেকট্রিক, নেটমেডস এবং আরও অনেক। বিজ্ঞাপণী প্রচারে নিয়মিত অংশ নেন তিনি। এখান থেকে ধোনির উপার্জন বেশ মোটা। খবর : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

সর্বাধিক পঠিত