প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দেশকে অন্ধকারের দিকে টেনে নেবেন না, বয়াতি শরীয়ত সরকারের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করুন

ইমতিয়াজ মাহমুদ : যে দেশে একজন শিল্পী মুক্তকণ্ঠে গান গাইতে পারেন না, সেটি কোনো সভ্য দেশ নয়। যে দেশে একজন শিল্পীকে গান গাওয়ার জন্যে কণ্ঠ রুদ্ধ করা হয় সেটি একটি গণতান্ত্রিক দেশ নয়। সে দেশে একজন শিল্পীকে গানের জন্যে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়, সেই দেশ একটি বর্বর দেশ। যে দেশের আইন শিল্পীর স্বাধীনতা নিশ্চিত করার পরিবর্তে তার কণ্ঠ রুদ্ধ করার চেষ্টা করে সেই দেশের আইন কোনো বৈধ আইন নয়। এইরকম দেশের এইসব বন্য অসভ্য বর্বর আইন মান্য করার জন্য নাগরিকদের কোনো নৈতিক বাধ্যবাধকতা নাই। আইন যদি মানুষের কণ্ঠ রুদ্ধ করে, সেই আইন অমান্য করা জায়েজ।

মানুষের লিবার্টি নিশ্চিত করার জন্য সিভিল ডিসঅবেডিয়েন্স কখনো কখনো আপনার নৈতিক দায়িত্বও হয়ে যায়। দেশকে অন্ধকারের দিকে টেনে নেবেন না। বয়াতি শরীয়ত সরকারের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করেন, ওই কালা কানুন বাতিল করেন, শিল্পীকে এক্ষুনি মুক্ত করেন। কী বলেছেন শরীয়ত সরকার? সেটা প্রাসঙ্গিক নয়। তিনি তার যা ইচ্ছা তাই বলবেন। শিল্পীর স্বাধীনতা হচ্ছে একটি কন্টেন্ট নিউট্রাল বা বিষয় নিরপেক্ষ অধিকার। নিরঙ্কুশ। সুতরাং তিনি কী বলেছেন, সেটা সংখ্যাগরিষ্ঠের মাপে ঠিক কি বেঠিক এইসব কথা বিবেচনার কোনো সুযোগ নাই। শিল্পী যা ইচ্ছা তাই বলবেন, যা ইচ্ছা তাই গাইবেন। শিল্পীর কণ্ঠ রুদ্ধ করা যায় না। এটা অসভ্য আচরণ- বর্বরতা। বেআইনি আচরণ। শিল্পী শরিয়ত সরকারের মুক্তি চাই। এক্ষুনি। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত