প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ধর্ষকের ফাঁসির দাবিতে ফার্সি বিভাগের মানববন্ধন

ওবায়দুর রহমান সোহান, ঢাবি প্রতিনিধি : রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে তারা এই মানববন্ধন করেন। এসময় তারা অবিলম্বে ধর্শকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দাবি করেন।

মানববন্ধনে ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বাহাউদ্দিন, অধ্যাপক আহসানুল হাদী সহ বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে আজিজুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা কোনো সুসংবাদ নিয়ে এখানে দাঁড়ায়নি আমরা ফাঁসির দাবিতে এখানে দাঁড়িয়ে। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী ধর্ষিত হয় তা মেনে নেয়ার মতো নয়।আমরা চাই, জাতির অভিশাপ মজনু নামে যে কুলাঙ্গার আমার বোনকে ধর্ষণ করেছে সেই ধর্ষককে প্রকাশ্যে ফাঁসিতে ঝুলানো হোক। যাতে এ ধরনের কর্মকাণ্ডে আর কেউ লিপ্ত হতে না পারে।

হিমু নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, গত ৫ তারিখে কুর্মিটোলা বাসস্টেশনে নির্মমভাবে আমার বোন ধর্ষিত হয়েছে। মজনু নামে এক কুলাঙ্গার আমার বোনকে ধর্ষণ করেছে। আমরা তাই তার সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি হোক। আমার বোনের ধর্ষণের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথে থেকে আন্দোলন চালিয়ে যাব।

বিভাগের শিক্ষক ড. মোহাম্মদ বাহাউদ্দিন বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীকে যে ধর্ষণ করেছে সে নরপিশাচের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে আমরা এখানে দাঁড়িয়ে আছি। আমরা চাই ওই নরপিশাচের ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হোক এবং তা দ্রুত তার সাথে কার্যকর করা হোক। যাতে আর কোনো ধর্ষক এই ধরনের কাজ করতে সাহস না পায়।

তিনি আরো বলেন, আমাদের এই প্রাণপ্রিয় ক্যাম্পাসে শত শত মজনু অবাধ বিচরণ করছে। অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এই মজনুদের কারণে মা-বোনেরা বিচরণ করতে পারেনা। অনেক ভবঘুরে মাদকাসক্তের বিচরণ এই ক্যাম্পাসে। আমরা চাই, এই ক্যাম্পাসকে বহিরাগত মুক্ত করতে হবে। যাতে আর কোন বোন,নারী শিক্ষার্থী হেনাস্তার শিকার না হয়।

আহসানুল হাদী বলেন, আমার বোনকে যদি নিরাপদ রাখতে হয়, এই ক্যাম্পাসকে যদি মুক্ত করতে হয়। তাহলে এই কুলাঙ্গার কে ফাঁসি দিতে হবে। যাতে আর কোনন বোন ধর্ষনের শিকার না হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত