প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিচারকদের কাছে খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন করা নিরর্থক, বললেন জাফরুল্লাহ

শিমুল মাহমুদ : রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের উদ্যোগে ২০১৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর ভোট ডাকাতির প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সবচেয়ে দুর্ভাগ্য হলো জাতি যখন বিপদে পড়ে তখন বিচারকরা ঘুমিয়ে পড়ে। গতবছর নির্বাচনের উপরে এতগুলো মামলা হয়েছে একটা দিনও হেয়ারিং হয় নাই। এই বিচারকরা জনসাধারণের কাছে কি জবাব দেবেন? তাই এই বিচারকদের কাছে খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন করা নিরর্থক। খালেদা জিয়ার মুক্তি হতে পারে একমাত্র জনগণের মাধ্যমে।

তিনি বলেন, যেদিন দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে সেদিন এই বিচারকদের রাস্তায় দাঁড় করিয়ে জিজ্ঞাসা করা হবে বেগম খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট টা ঠিক মত পড়েছেন কিনা।
জাফরুল্লাহ বলেন,বেগম খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট যেটা দেয়া হয়েছে সেখানে কোন সাইকোলজিস্ট, একজন ফিজিওথেরাপি ছিলনা। সুতরাং এটা যে হুকুম নামার রিপোর্ট এটা বোঝার মত ৭ বিচারপতির আছে।

গত বছর ২৯ ডিসেম্বর রাতে ভোট ডাকাতির পর থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশকে এক এক করে পত্যেক সম্পত্তিতে রুপান্তরিত করা। সোরওয়ারদী উদ্যানে সরকারি দল এবং তার দোসর দল সমাবেশ, সম্মেলন করতে পারবে কিন্তু ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপি ও অন্যান্য দল করতে পারবে না। এটা কি তাদের বাবার সম্পত্তি পেয়েছে?

তি‌নি আরও ব‌লেন, যখন জাতি ঘুমিয়ে পড়ে তখন দু‌র্যোগ দেশের দিকে এগিয়ে আ‌সে। তাই আজকে সকলের সহযোগিতার মাধ্যমে রাজপথে নেমে এই দুর্যোগ থেকে দেশকে বাঁচাতে হবে। তাহলে অন্যায়ের পতন হবে এবং ন্যায় প্রতিষ্ঠা হবে।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য মঈন খান, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত