প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এরশাদকে ৮ ঘণ্টায় ৮ ব্যাগ রক্ত দেয়া হয়েছে, জানালেন জিএম কাদের

ইউসুফ আলী বাচ্চু : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে গত সাতদিনে ২৮ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। গত আট ঘণ্টায় দেওয়া হয়েছে ৮ ব্যাগ রক্ত, পেট থেকে ২০০ মিলিলিটার পানি বের করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে তাকে ডায়ালাইসিস করা, বিকেলে আবার ডায়ালাইসিস করা হবে। তার অনেক সমস্যা রয়েছে যেগুলো কৃত্রিমভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আরও রক্তের প্রয়োজন আছে। আগের চেয়ে তিনি ভালো আছেন তবে শঙ্কামুক্ত না।

শুক্রবার বাদ জুমায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেটে পল্লীবন্ধুর সুস্থতা কামনায় দোয়া শেষে গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের।

জিএম কাদের বলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতিকে বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) বিকেল ৪টা ১০মিনিট থেকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে। ফুসফুসের সংক্রমণ কিছুটা কমলেও শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। আবার কিডনি কিছুটা কাজ করলেও তার শরীর থেকে বর্জ্য বের হচ্ছিল না। তাই সম্মিলিত সামরিক (সিএমএইচ) হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে (হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ) লাইফ সাপোর্ট দেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটি হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছে পল্লীবন্ধুর সব প্রতিবেদন মেইল করেছেন সিএমএইচের চিকিৎসকরা। তবে সিঙ্গাপুরের চিকিৎসকরা এমন শারীরিক অবস্থায় তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়াকে সমর্থন করেননি।

জিএম কাদের আরও বলেন, আজ (শুক্রবার) সকাল ১১টায় আমাদের চেয়ারম্যানকে দেখতে যেয়ে দেখি তাকে অনেক সুন্দর দেখাচ্ছে, সুস্থ দেখাচ্ছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার শরীর পেটে জমে থাকা পানি (২০০ মিলি) বের করা হয়েছে। তাছাড়া ডায়ালাইসিস করা হয়েছে আবার শুক্রবার বিকেল বা সন্ধায় আবারও ডায়ালাইসিস করা হবে। এখন কিছুটা সুস্থ দেখাচ্ছে তবে এটাকে শঙ্কামুক্ত বলা যাবে না, আশঙ্কাজনকভাবে আছেন। তবে এখন যেভাবে তার শরীর রয়েছে এমনটা থাকলে হয়তো তার কৃত্রিম চিকিৎসার প্রয়োজন পড়বে না, দ্রুত সুস্থ হয়ে আবারও ফিরবেন।

এর আগে মসজিদে আগত মসুল্লিদের কাছে দোয়া চান জিএম কাদের।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নে তার অনেক অবদান আছে, তিনি অসুস্থ, তার জন্য সবাই দোয়া করবেন। জুমার নামাজ শেষে এরশাদের রোগমুক্তি কামনায় বিশেষ দোয়া পরিচালনা করেন মসজিদের পেশ ইমাম মিজানুর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাপার মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙা, সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাসহ দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত