প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খাবারের কাপড়ের রং ব্যবহারে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে মানুষ, হচ্ছে ক্যান্সার

হ্যাপি আক্তার : কোনো ভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না খাবারে কাপড়ের রং ব্যবহার। যা তৈরি করছে মারাত্বক স্বাস্থ্য ঝুঁকি। যমুনা টেলিভিশন, ০১:০০।

চিকিৎসকরা বলছেন, নিয়মিত এই রং মাখানো খাবার খেলে শিশু ও প্রাপ্ত বয়স্করা আক্রান্ত হতে পারেন মরণ ব্যাধি ক্যান্সারে।

সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি এসব ব্যবসায়ীদের রুখতে যুগোপযোগী আইন প্রয়োগের দাবি বিশেষজ্ঞদের।
পচাঁ বাসি মাংসে কাপড়ের রং মিশিয়ে তরতাজা দেখিয়ে বিক্রির চেষ্টা। আর সেই মাংস সরল বিশ^াসে কিনছেন সাধারণ মানুষ। শুধু মাংস নয়, রংহীন খাবার যেন এখন পাওয়া দুষ্কর।
আকর্ষনীয় আর দামে কম হওয়ায় দেদারসে ব্যবহার হচ্ছে কাপড়ের রং। যা স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত হুমকি। সবচেয়ে ঝুঁকিতে আছে শিশুরা।

কাপড়ের রং ব্যবহার করা খাবার খেলে হাপানিসহ আরো বেশ কিছু রোগে আক্রান্ত হতে পারেন যে কেউ।
ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের ওষুধ প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক আ ব ম ফারুক বলেন, ছোট ছোট বাচ্চাদের হাঁপানি। এর পেছনের প্রধান কারন হলো নানান ধরনের জুস, চিপস, বিস্কুট খাবারে যে রং আছে তার সব টুকুই কাপড়ের রং। কিন্তু বাচ্চাদের বাবা-মা তা জানেন না।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ আবুল কামাল আজাদ বলেন, এতে শিশুদের মানসিক বৈকল্য হয়। কিডনি ও লিভারে প্রচুর মাত্রায় আক্রমন হয় এবং পরবর্তীতে ক্যান্সারও হতে পারে।
সাধারণত ফুড কালারের দাম বেশি তাই খাদ্যে কাপড়ের রং ব্যবহার করে অসাধু ব্যবসায়ীরা। শুধু আর্থিক জরিমানা নয় এসব অসাধুদের কঠোর আইনের মাধ্যমে বিচারের দাবি বিশেষজ্ঞদের। সম্পাদনা : কায়কোবাদ মিলন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত