প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাজতে সাজাতে চাই পছন্দের প্রসাধনী

নিউজ ডেস্ক : ঈদে নারীর সাজের অনুসঙ্গ কসমেটিকস। যা ছাড়া নারীর সাজ পূর্ণ হয় না। তাই জামা-জুতার পরেই নারীর প্রয়োজন সাজগোজের অনুষঙ্গ। শপিংমলগুলো ঘুরে দেখা যায়, এসময়ে কসমেটিকস-এর দোকানে নারীদের ভিড়। পিছিয়ে নেই পুরুষরাও। নারীদের আইলাইনার, মাশকারা, লিপলাইনার, লিপিস্টিক, কাজল, ফাউন্ডেশন কেনার ভিড়ে দেখা যায় ছেলেরা কিনছেন—সেভিং ক্রিম, আফটার সেভ লোশন, বডিস্প্রে ও পারফিউম ও হেয়ার জেল।  ইত্তেফাক।

শাড়ি জামা কেনা শেষে নারীরা এখন কসমেটিকসগুলো কিনতেই ব্যস্ত। ঈদের জন্য কেনা পোশাকটি যত আকর্ষণীয়ই হোক না কেন; সেই পোশাকের সঙ্গে ম্যাচিং করে সাজ-গোজের পণ্যসামগ্রী না হলে ঈদের যেন পরিপূর্ণতা পাবে না। তাই ঈদের নতুন পোশাকের সঙ্গে নিজেকে সাজাতে ফ্যাশন সচেতন নারীরা এখন ব্যস্ত কসমেটিকস কিনতে।

ধানমন্ডির মেট্রো শপিংমলে কসমেটিকস কিনতে দেখা যায় সুরাইয়া মিথিলাকে। তিনি বলেন, কসমেটিকস একটু ভালো মানের কিনতে গেলেই অনেক টাকা লেগে যায়। তাই ঈদের সময় পোশাকের সঙ্গে কসমেটিকস এর বাজেট করে রাখি। কসমেটিকসের ক্ষেত্রে দেশি-বিদেশি কোনো ভাগ নেই। যার যেমন পছন্দ ও সামর্থ্য সে অনুযায়ী ক্রেতারা কিনছেন এসব পণ্য। বেশি বিক্রি হচ্ছে গোল্ডেন রোজ, নিওর, জ্যাকলিন, লরিয়াল, র্যাভলন, মেবলন জর্ডানা, ফ্লোমার, কোম্পানির কসমেটিকস।

শ্যামলী রিংরোডে জমজমাট কেনাকাটা চলছে টকিও স্কয়ারে। সেখানে দোতলায় কসমেটিকসের দোকানগুলোতে নারীদের ব্যাপক আনাগোনা। সেখানে কথা হয়, দোকানি আরমান হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমরা মানসম্মত প্রসাধন সামগ্রী দেওয়ার চেষ্টা করছি. যার কারণে এখানে নারীদের ভিড় বেশি।

পোশাকের সঙ্গে রঙ মিলিয়ে মিথিলা কিনছেন লিপস্টিক, নেলপলিশ, আইলাইনার, আইশ্যাডো, ব্লাশন প্রভৃতি। এর সাথে সবসময়ের প্রয়োজনীয় উপকরণ যেমন—ফেস পাউডার, ফাউন্ডেশন, প্যানকেক, বডি সেপ্র, পারফিউম, প্যানস্টিক, শ্যাম্পু, সাবান ইত্যাদি।

বিক্রেতা জলিল মিয়া বলেন, ব্যস্ততা থাকবেই। আমাদের এই রকম ব্যস্ততা থাকবে চাঁদ রাত পর্যন্ত। কোনো ধরনের প্রসাধন বেশি বিক্রি হচ্ছে জানতে চাইলে বলেন, আইলাইনার, মাসকারা, আইল্যাশ, নেইলপলিশ, ফেসপাউডার, আইস্যাডো এসব বেশি বিক্রি হচ্ছে। তবে প্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীও বিক্রি হচ্ছে। এরমধ্যে শ্যাম্পু, লোশন, ক্রিম, ছেলেদের রেজার, আফটার সেভলোশন, ফোম। চলছে বেশি সানসিল্ক, ডাভ, ক্লিয়ার, লরিয়াল, প্রেন্টিলরেল, হারবাল, এসেন্স, প্যানট্রি ইত্যাদি শ্যাম্পু। দাম ২২০ থেকে ১২শ টাকা পর্যন্ত।

তবে সব শ্রেণির ক্রেতাদের পছন্দের মার্কেট গাউসিয়া ও নিউমার্কেট। এখানে সুলভমূল্যে কসমেটিকস পাওয়া যায় সবসময়। তবে সেখানে একটু দেখেশুনেই কিনতে হয়। নয়তো দামে ও মানে ঠকতে হবে। এখানে সব ধরনের পণ্য পাওয়া যায়। গাউসিয়া মার্কেটে প্রসাধন সামগ্রী কিনতে এসেছেন রিপ্তি। তিনি বলেন, শ্যাম্পু, ডিপ কন্ডিশনার ও লিপস্টিক কিনেছি, এখানে দামে একটু কম। এসব পণ্য অন্য বড় মার্কেটে অনেক বেশি দাম নিয়ে থাকে, তাই কসমেটিকস এখানেই কিনতে আসি।

ঈদের দিন মেকআপ করার পাশাপাশি নিজেদের হাত মেহেদির রঙে সাজাতেও ভুলছেন না শিশু-কিশোরি ও তরুণীরা। হাত রাঙাতে মেহেদির মধ্যে বিক্রির শীর্ষে রয়েছে আলমাসের মেহেদি। তবে, লিজান, রাঙাপরি, শাহাজাদী, মমতাজ এসব মেহেদিও ভালই বিক্রি হচ্ছে। এগুলো প্রতিটির দাম ৫০ টাকা থেকে শুরু করে ২০০ টাকা পর্যন্ত।

 

 

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত