প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সুন্দরবনে বাঘ জরিপের রির্পোট প্রকাশিত হবে আজ

কেএম নাহিদ : বন বিভাগ আজ সুন্দরবনের সর্বশেষ শেষ বাঘ জরিপের ফলাফল প্রকাশ করবে। দেশে গত এক দশকে সরকারি বেসরকারি উদ্যেগের কারণে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবারের বাঘ জরিপে বাঘের সম্পর্কে কী ধরনের চিত্র পাওয়া যাবে বিবিসি’র সঙ্গে আলাপে বলেছেন বাঘ বিশেষজ্ঞ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণী বিদ্যার অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি বলেন, আজ যে জরিপের ফল বন বিভাগ ঘোষণা করবে এবং তার আগে ডেইলি স্টার যে প্রতিবেদনে আমরা দেখেছি তাতে তারা লিখেছে ১০৬ টি বাঘ ছিলো ২০১৫ সালে এইটি বেড়ে ১১৪ টি হয়েছে। যদি ১১৪টি হয়ে থাকে তবে বাংলাদেশের মানুষের জন্য আনন্দের সংবাদ।

তিনি বলেন, ২০০৪ সালেও পায়ের চাপ দেখে যে গননা হয়েছিলো তাতে ৪০০ টি বাঘ বেশি দেখা দিয়েছিলো। তখন সবাই একটু দ্বিধান্বিত ছিলো। যে পদ্ধতিটা সঠিক ছিলো কি না। সঠিক গননা বা কয়টি বাঘ রয়েছে তা বন বিভাগই আমাদের প্রথম জানায় ২০১৫ সালে। আগে যে গননায় ৩০০ থেকে ৫০০টি বাঘ দেখানো হয়েছিলো তার গননার পদ্ধতিটা বৈজ্ঞানিক ভাবে সঠিক ছিলো না। এখন ২০১৫ সালের পর নতুন যে তথ্য আসবে সেটি জাতীয় না শুধু আন্তজার্তিক ভাবে গ্রহণযোগ্য হবে।

তিনি বলেন, প্রতিটি বাঘের যে ছবি এক রকম মনে হলেও বাঘের যে ডোরাকাটা দাঘ তা কিন্তু একটি বাঘ থেকে অন্য একটি বাঘের থেকে ভিন্ন। তাহলে যদি আমরা দু পাশ থেকে ছবি তুলতে পারি তা হলে বুঝতে পারা সম্ভব। এটি কোন বাঘ এ. না বি. বাঘ, এটা সহজে চিহ্নিত করা সম্ভব। তাহলে আমরা যদি বাঘের ১০০টি ছবি তুলে তবে ‘এক্সট্রাপলিট ’ করে বলা যায় ১০০ বর্গ কি:মি: মধ্যে কতটি বাঘ আছে।

তিনি আরো বলেন, সুুন্দরবন ৬হাজার ১৭ বর্গ কি:মি: বন রয়েছে তার মধ্যে অর্ধেকটা ও যদি সার্ভের এলাকা ধরি তবে, কতোটি বাঘ রয়েছে তা জানা যাবে। আর সেই ফলাফল থেকেই থেকেই বলা হয়েছে ১১৪টি বাঘ পেয়েছি। কেউ কেউ বলে সুন্দরবনের যে এলাকা আছে তাতে ৩০০ থেকে ৫০০টি বাঘ থাকতে পারে। কিন্তু বাঘের যে হোম রেইঞ্জ তা সঠিক ভাবে নিরুপন করা হয়নি । সম্পাদনায়: এইচ এম জামাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত