প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে যুবককে শিকলে বেঁধে নির্যাতন

বরিশাল প্রতিনিধি: পাওনা টাকা আদায়ের জন্য সুমন হালদার (৩৭) নামের এক যুবককে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগে পাওনাদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে গ্রেফতারকৃতকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার উজিরপুর উপজেলার শোলক ইউনিয়নের দক্ষিণ কাংশি গ্রামে।

নির্যাতনের শিকার সুমন হালদার একই উপজেলার বড়াকোঠা গ্রামের শিশু কুমার হালদারের পুত্র ও গ্রেফতারকৃত শহিদুল ইসলাম দক্ষিণ কাংশি গ্রামের মৃত আক্কেল আলীর পুত্র। সুমনের স্বজনরা জানান, তিন বছর আগে বিদেশ যাওয়ার জন্য সুমন হালদারকে ৭৫ হাজার টাকা দিয়েছিল শহিদুল ইসলাম। পরবর্তীতে সমূদয় টাকা পরিশোধ করা সত্বেও সুদ বাবদ আরও ১ লাখ ২০ হাজার টাকা দাবি করে আসছিল শহিদুল ইসলাম। ওই টাকার দাবিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে সুমন হালদারকে ইচলাদী এলাকা থেকে ধরে নিয়ে যায় শহিদুল। পরে তার বাড়িতে নিয়ে পায়ে শিকল দিয়ে খাটের পায়ার সাথে তালা মেরে নির্যাতন চালায় শহিদুল। সুমনের স্বজনরা শুক্রবার বিষয়টি জানতে পেরে থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

উজিরপুর থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, সুমনকে নির্যাতনের অভিযোগে তার স্ত্রী বিথী রানী হালদার থানায় মামলা দায়ের করার পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিকল বাঁধা অস্থায় সুমনকে উদ্ধার করেছে। একইসাথে শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত