প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কারাগারে খালেদা জিয়ার এক বছর, ঘরোয়া কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি

বাংলা ট্রিবিউন : আজ শুক্রবার ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাবাসের বছর পার হলো। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজা পেয়ে তাকে জেলে যেতে হয়। দিনটিকে কেন্দ্র করে সারাদেশে কর্মসূচি দিয়েছে বিএনপি। তবে ঢাকায় তারা ঘরোয়া কর্মসূচি পালন করবে। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করবে দলটি।
বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা আড়াইটায় শুধু ঢাকার রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিএনপির উদ্যোগে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হবে। এছাড়া, ৯ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী (ঢাকা মহানগরী বাদে) একই দাবিতে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হবে।
খালেদা জিয়া যখন কারাগারের এক বছর পূর্ণ হওয়ার সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রয়েছেন সিঙ্গাপুরে। চিকিৎসার জন্য তিনি সেখানে অবস্থান করবেন, এ কথা বাংলা ট্রিবিউনকে এক সপ্তাহ আগেই জানিয়েছিলেন তিনি।
শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের অনুষ্ঠানে জ্যেষ্ঠ নেতাদের অনেকেই উপস্থিত থাকবেন, এমন তথ্য দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।
তবে এর আগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা জানিয়েছিলেন, কারাবাসের এক বছর উপলক্ষে খালেদা জিয়ার সঙ্গে নেতারা দেখা করে কারাগারে যাবেন। ফ্রন্টের অন্যতম প্রধান শরিক বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকারও এ প্রতিবেদককে বলেছিলেন, ঐক্যফ্রন্টের নেতারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে কারাগারে যেতে পারেন।
বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তি জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার কারাবরণের বছরপূর্তি ও তার মুক্তির দাবিতে লিফলেট ও পোস্টার করেছে বিএনপি।
এক বছর ধরে কারাগারে থাকা খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা বেশি ভালো নয়। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে জানান, বিএনপি চেয়ারপারসনের শরীর বেশি ভালো নয়।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেল খাটছেন খালেদা জিয়া। বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, তাদের দলীয় চেয়ারপারসনের কারাবরণ সম্পূর্ণ রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে রাজপথে তেমন কোনও কার্যকর প্রতিবাদ করতে সক্ষম না হলেও দেশে-বিদেশে গত এক বছর ধরেই দলনেত্রীর সাজার বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল বিএনপি।
খালেদা জিয়ার কারাবাস তথা লড়াই-সংগ্রামের বিষয়ে কয়েকটি বইয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ওয়ান-ইলেভেনের সময় এক বছরের বেশি সময় কারাগারে ছিলেন। ওই সময় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও জেলে ছিলেন। এর আগে বেগম খালেদা জিয়া সামরিক শাসক এরশাদের শাসনামলে আটক হয়েছেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি চট্টগ্রামে শাসরুদ্ধকর অবস্থায় ছিলেন। পঁচাত্তরের ৭ নভেম্বরের পটভূমিতে জিয়াউর রহমানের সঙ্গে গৃহবন্দি ছিলেন। এরশাদবিরোধী আন্দোলনের সময় আটক হয়েছেন, হামলার মুখে পড়েন। ’৯৬ সালে আওয়ামী লীগের সময়েও হামলার মুখে পড়েছেন, হয়রানির শিকার হয়েছেন, রাস্তায় সারাদিন অবরুদ্ধ ছিলেন।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত