প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভাড়ায় নেয়া দুটি বিমানের লোকসান বছরে ১২০ কোটি টাকা, ছাড় না দেওয়ার হুঁশিয়ারি প্রতিমন্ত্রীর

হ্যাপি আক্তার : কর্মকর্তাদের খামখেয়ালিপনায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া দুটি উড়োজাহাজের পেছনে প্রতি বছর ১২০ কোটি টাকা লোকসান দিচ্ছে। এ বিষয়ে বিমানের অনিয়মের সাথে জড়িত থাকলে ছাড় হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বেসামরিক বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী। আরটিভি। মিশরের ইজিপ্ট এয়ার থেকে ২০১৪ সালে পাঁচ বছরের জন্য দুটি বোয়িং ৭৭৭-২০০ ইআর ড্রাই লিজ নেয় বিমান। লিজ নেয়ার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যেই উড়োজাহাজ দুটি নষ্ট হয়ে যায়।

চুক্তি অনুযায়ী, দুটি উড়োজাহাজের জন্য প্রতি মাসে ১০ কোটি করে বছরে ১২০ কোটি টাকা লোকসান দিতে হচ্ছে বিমানকে। ফলে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী একমাত্র উড়োজাহাজ সংস্থাটির আয়ের বড় অংশই খরচ হয়ে যাচ্ছে।  চুক্তি অনুযায়ী, যাত্রী পরিবহন করুক আর না করুক প্রতি মাসে উড়োজাহাজ প্রতি ৪ কোটি ৭০ লাখ ১৬ হাজার টাকা ভাড়া দিতে হবে বিমানকে। পাঁচ বছরের আগে চুক্তি বাতিল করা যাবে না, আবার লিজের মেয়াদ শেষে উড়োজাহাজ দুটি আগের অবস্থায় ফেরত দিতে হবে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলইনসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোসাদ্দেক আহমেদ বলেন, বিমান দুটি রিডেলিভারি করতে যথেষ্ট অসুবিধা হচ্ছে। বিমানের যন্ত্রাংশগুলো সহজলভ্য নয়। বর্তমানে মেরামতের জন্য উড়োজাহাজ দুটি ভিয়েতনামের বিমানবন্দরে রয়েছে। বিমান দুটোর জন্য প্রতি মাসেই বিরাট অংকের আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে আগামী মাসের মধ্যে অন্তত একটি উড়োজাহাজ ফেরত দেওয়ার সুনির্দিষ্ট দিন ঠিক করতে পারবো।

নিজের স্বার্থ বিবেচনা না করে চুক্তি করায় লিজ নেয়া দুটি উড়োজাহাজ বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মনে করেন বিমান বিশেষজ্ঞ কাজী ওয়াহিদুল আলম। তিনি বলেন, এ যাবত বিমান কর্তৃপক্ষ যতগুলো বিমান লিজ নিয়েছে, প্রত্যেকটি ফেরত দেয়ার জন্য নাকে খত দিতে হয়েছে। তার পরেও বিমান এখান থেকে শিক্ষা নেয়নি। কর্তৃপক্ষ চাইলে আরও আগেই বিষয়টির সমাধান করতে পারতো। যত দ্রæত সম্ভব এই বিমানগুলো ফেরত দিতে হবে।

ইজিপ্ট এয়ারের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত উড়োজাহাজ দুটি ফেরত দেয়ার ব্যাপারে বিমানকে নির্দেশ দিয়েছেন বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী। তিনি বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে বিমানের কোনো কর্মকর্তা জড়িত থাকলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর বিমানের ভাবমূর্তি উদ্ধারে সেবার মান বাড়ানোর পাশাপাশি দুর্নীতি রোধ করা হবে।
সম্পাদনা : জামাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত