প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এখনও কাজে ফিরেনি গাজীপুরের পোশাক শ্রমিকরা

স্বপ্না চক্রবর্তী : মালিক ও শ্রমিক নেতাদের আহ্বান উপেক্ষা করে ন্যূনতম মজুরি সংক্রান্ত বিভ্রান্তিতে এখনও কাজে ফিরেনি গাজীপুরের ৮টি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। এতে করে ওই সব কারখানায় বন্ধ আছে উৎপাদন। তারা কোনো ধরণের সহিংসতায় অংশ না নিলেও কর্মবিরতি পালন করছে বলে জানিয়েছেন মালিকরা। ফলে ক্রেতাদের চাহিদামতো পণ্য সরবরাহ করতে পারছে না কারখানাগুলো।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনে সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনি জানান, নতুন করে কোনো ঝামেলা না হলেও গাজীপুরের কাশিমপুর থেকে কোনাবাড়ি পর্যন্ত যতগুলো কারখানা রয়েছে সবগুলো কারখানার শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করছে। আমরা তাদের সাথে কথা বলে বোঝানোর চেষ্টা করছি। তাদেরকে বলেছি সরকার ঘোষিত গেজেট অনুসারেই বেতন-ভাতা দেওয়া হবে। তাই নির্বাচনকে সামনে রেখে যেনো কোনো ধরণের সহিংসতায় না যায়। আশা করছি আজকের মধ্যেই সবাই কাজে ফিরে যাবে।

তবে এত বড় খাতের মধ্যে এই কয়েকটি কারখানায় শ্রমিক বিক্ষোভ বড় কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিজিএমইএ এর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, শ্রমিকদের আমরা বোঝাতে সক্ষম হয়েছি যে বেতন-ভাতা সরকার নির্ধারিত গেজেট অনুসারেই দেওয়া হবে। তাই আপনারা কোনো সংঘাতে না গিয়ে উৎপাদন কাজে মনোযোগ দিন। উৎপাদন বাড়লে আপনাদের বেতন আপনা আপনিই বাড়তে থাকবে। আপনাদের আন্দোলন করে নিতে হবে না।

বিজিএমইএ এর দাবি, পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরির গেজেট গত মাসে প্রকাশিত হওয়ার পর মালিকপক্ষ এই মজুরি দিতে রাজি হলেও একটি মহলের উসকানিতে শ্রমিকরা কর্মবিরতিসহ আন্দোলন বিক্ষোভে জড়িয়ে পরে। এতে করে উৎপাদন বন্ধ হওয়ার পাশাপাশি অনেক বিদেশি ক্রেতা চলে যায় বাংলাদেশ থেকে। শ্রমিকদের কাজে ফিরিয়ে নিতে শ্রম মন্ত্রণালয়, বিজিএমইএ ও শ্রমিক নেতারা একযোগে কাজ করছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত