প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নওগাঁয় পাখির জন্য নিরাপদ অভয়াশ্রম গড়ে তুলতে জেলা প্রশাসকের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি: নিরাপদ আশ্রয় ও প্রয়োজনীয় খাদ্য অভাবে কমছে জীব-বৈচিত্রের সংখ্যা। বন্যকুলের নিরিহ ছোট প্রাণী পাখি। তাই তাদের জন্যও একটা নিরাপদ বাসস্থান থাকা প্রয়োজন। পাখিদের জন্য ভালবাসার এমন মহানুভবতায় গড়ে তোলা হচ্ছে নিরাপদ ’অভয়াশ্রম’ বাসস্থান। পাখীদের নিরাপদ অভয়াশ্রম গড়তে নওগাঁয় ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর রহমান। জেলা প্রশাসকের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতনরা।

প্রকৃতিকে পাখির কিচিরমিচির শব্দ সবারই মন কাড়ে। পাখিরা বিশেষ করে গাছে আশ্রয় নিয়ে থাকে। গাছেই তাদের ঘর সংসার। সেখানে তাদের ডিম ও বাচ্চা ফুটানো। আর তাদের সুখের সংসারে আঘাত হানে প্রাকৃতিক দূর্যোগ। গাছে আশ্রিত পাখিদের বিশেষ করে ঝড়-বৃষ্টিতে ক্ষতি হয়ে থাকে। এতে তাদের ডিম ভেঙে যায়। আবার বাসায় থাকা ছানা নিচে পড়ে মারা যায়। অনেক পাখি ঝড়ের কবলে পড়ে ডানা ভেঙে যায় এবং মারাও যায়। এতে পাখিরা নিরাপদ আশ্রয় না ভেবে অনত্র দলবেঁধে চলে যায়।

আর এসব দিকে বিবেচনা করে পাখীদের নিরাপদ অভয়াশ্রম গড়তে উদ্যোগ নিয়েছেন জেলা প্রশাসক। গত কয়েক মাস থেকে জেলার বিভিন্ন উপজেলার হাট-বাজারগুলোতে বড় বড় গাছে মাটির হাড়ি (পাতিল) বেঁধে দেয়া হচ্ছে। উপজেলা পর্যায়ে ইউনিয়ন ভূমি অফিস থেকে এ কাজে সহযোগীতা করা হচ্ছে।

জেলার বদলগাছী উপজেলার পশ্চিম বালুভরা গ্রামের প্রায় তিনশ বছরের বট গাছ। জায়গাটি ছায়া শীতল স্থান হওয়ায় সেখানে অনেক প্রজাতির পাখির আনাগোনা। তাই ওই স্থানটিকে পাখিদের জন্য একটি অভয়াশ্রম করতে গাছের ডালে পাতিল বেধে বাসস্থান করা হচ্ছে। পাতিলগুলোর একপাশে ছিদ্র যুক্ত। দুটি ডালের মাঝখানে এমনভাবে কায়দা করে পাতিলগুলো বসানো হয়েছে যেন বৃষ্টির পানি ভিতরে প্রবেশ করতে না পারে।

এসব পাতিলের মধ্যে নিরিহ প্রাণী পাখিরা দিনে ও রাতে নিরাপদে বসবাস করতে পারবে। গাছে পাতিল বেঁধে দেয়ায় নিরাপদ মনে করে বাসা বেঁধেছে দোয়েল, ঘুঘু, বাবুই ও বুলবুলিসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। এমনকি কাঠ বিড়ালও। গাছের ডালে ডালে প্রায় ৫০টির মতো মাটির পাতিল বেঁধে দেয়া হয়েছে।

বদলগাছী উপজেলার পাটন ঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শিলি ফরাহানা বলেন, পাখিরা মূলত গাছে আশ্রয় নিয়ে থাকে। বছরে বেশ কয়েকবার ঝড় হয়। এতে পাখিদের ডিম ভেঙে ও বাচ্চা নিচে পড়ে মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটে। ঝড়ঝাপটায় অনেক পাখির ডানা ভেঙে যায়। পাখীরা যেন ভাল থাকে তার জন্য জেলা প্রশাসক স্যার বট গাছে পাতিল টাঙিয়ে দিয়ে পাখিদের নিরাপদের ব্যবস্থা করেছেন যা নি:সন্দেহ একটি ভাল উদ্যোগ।

উপজেলার বালুভরা-বিলাশবাড়ী ইউনিয়ন ভূমি অফিস সহকারী কর্মকর্তা মওদুদুর রহমান কল্লোল বলেন, হাট-বাজারে বড় বড় গাছে পাতিল টাঙানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে প্রায় শতাধিক পাতিল টাঙানো হয়েছে। নিরাপদ মনে করে পাখিরা আশ্রয় নিতে শুরু করেছে। কাঠ-বিড়ালীও পাতিলের মধ্যে বাসা বেঁধেছে।

বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুম আলী বেগ বলেন, পশু পাখি পরিবেশের একটা অংশ। পাখিদের নিরাপদ আবাস গড়তে জেলা প্রশাসন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এরই অংশ হিসেবে হাট-বাজারে সরকারি গাছগুলোতে মাটির ছোট পাতিল বেঁধে দেয়া হচ্ছে। উপজেলার বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

নওগাঁ জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর রহমান বলেন, পাখিরা যেন নিরাপদে থাকতে পারে। পাখিদের নিরাপদ অভয়াশ্রম গড়তে এমন পরিকল্পনা। জীব ও বৈচিত্র সংরক্ষনে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতি উপজেলায় ছাড়া নিবিড় স্থান গুলোতে পাখিদের জন্য অভয়াশ্রম তৈরি করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ