প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাগেরহাটে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হিন্দু পরিবারের জমি দখলের চেষ্টা

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট: বাগেরহাটের রামপালে আদালতের ১৪৪ ধারা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হিন্দু একটি পরিবারের বৈধ ভোগদখলীয় জমি ও বসতবাড়ি দখল চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখলবাজদের অব্যাহত হুমকিতে ভীত সন্তস্ত হয়ে পড়েছে ওই পরিবারটি। অভিযোগকারী উপজেলার নলবুনিয়া গ্রামের মৃত অধীর মন্ডলের স্ত্রী ললিতা মন্ডলের ভোগদখলীয় জমি হুড়কার চাড়াখালী গ্রামের জাকির মোল্যার পুত্র জলিল মোল্যা ও খলিল মোল্যা তাদের জায়গা দাবি করে বসত ভিটা ও মৎস্য ঘেরের মাটি কেঁটে জমির আকার পরিবর্তনের চেষ্টা ও গাছপালা কেঁটে নেয়।

এঘটনায় অভিযোগকারী ললিতা মন্ডল গত ১৮ এপ্রিল বাগেরহাটের অতিরিক্ত বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৩৮/২০১৮ নং একটি মিস মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে রামপাল থানার ওসিকে নালিশী জমিতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার নির্দেশ প্রদান করেন। ৩০ নং হুড়কা মৌজার এসএ ৪৪২ নং খতিয়ানে ১৭০৪ ও ১৭২২ দাগের ০.৫৯ একর জমি যার বিআরএস ৫৬৭ নং খতিয়ানের ৩৪২৭ দাগের ০.৭৪ একরের মধ্যে ০.৫৯ একর জমি। ভুক্তভোগীর দাবি বিবাদীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের অত্যাচারে ওই এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ ভীত সন্তস্ত হয়ে পড়েছেন। এ নিয়ে রামপাল থানায় ও হুড়কা ইউডনিয়ন পরিষদে শালিশ দরবারের মাধ্যেমে মিমাংশা হলেও ওই দখলবাজরা উপেক্ষা করে আসছেন।

অভিযোগের বিষয়ে প্রতিপক্ষ জলিল মোল্যা সাথে কথা বলার চেষ্টা করেও তার মুঠোফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

হুড়কা ইউপি চেয়ারম্যান তপন কুমার গোলদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জাকির গংরা ৪৪১ নং খতিয়ানের জমি কিনে কিভাবে ৪৪২ নং খতিয়ানের জমিতে আসার চেষ্টা করেন সেটা আমি বুঝতে পারছি না।

রামপাল থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এরপর ও যদি কেউ শান্তি শৃঙ্খলা ভঙ্গ করার চেষ্টা করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ