প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অভাবের তাড়না
৫ বছরের মেয়েকে হত্যা, দুই বছরের মেয়েকে হত্যার চেষ্টা

 ডেস্ক রিপোর্ট  : মাধবদীতে পারিবারিক কলহ ও অভাবের তাড়নায় নিজের পাঁচ বছরের মেয়েকে হত্যা করে দুই বছরের আরেক শিশুকন্যাকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে শফিকুল ইসলাম (৩৬) নামে এক পাষণ্ড বাবা। পরে তাকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।

জানা যায়, মাধবদী থানার কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের মৈষাদী গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে স্ত্রী ও দুই কন্যাসন্তান নিয়ে বসবাস করত শরীয়তপুরের শফিকুল ইসলাম। সে স্থানীয় টেক্সটাইল মিলে শ্রমিক হিসেবে কাজ করত। তবে বর্তমানে টেক্সটাইল মিলে কর্ম কম। ফলে সংসারে অভাব ও পারিবারিক কলহ লেগেই থাকত। এই যন্ত্রণা থেকে পরিত্রাণ পেতেই নিজের কন্যাসন্তানদের হত্যা করে বলে দাবি শফিকুলের।

শফিকুলের স্ত্রী রোকসানা জানান, ৩০ জানুয়ারি রাত ৯টায় শফিকুল তাদের বাড়ির একটি ঘরে তাদের পাঁচ বছরের মেয়ে চুমকিকে গলায় রশি দিয়ে হত্যা করে পরে দ্বিতীয় কন্যা লাবণীকে হত্যা করতে চাইলে তার চিৎকারে পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসে। এ সময় সে লাবণীকে পানিতে ফেলে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ নিহত চুমকীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘাতক শফিকুল ইসলামের বাড়ি শরীয়তপুরের ডামুড্যা থানার ছাতিয়ানী গ্রামে। তার বাবার নাম মৃত জামাল রাঢ়ী।

মাধবদী থানার ওসি ইলিয়াছ বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে শফিকুল তার এক কন্যাকে হত্যা করে আরেক কন্যাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

উৎসঃ   নয়াদিগন্ত

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত