প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডোকলামের কাছেই সামরিক স্থাপনা তৈরি করছে চীন

রাশিদ রিয়াজ : স্যাটেলাইট ছবিতে স্পষ্ট দেখা গেছে ডোকলাম সীমান্তের ৬ মাইল পূর্বে চীন সামরিক স্থাপনা তৈরি করছে। গত বছর গ্রীষ্মে ডোকলাম সীমান্তে রাস্তা তৈরি নিয়ে ভারত ও চীনের মধ্যে বিতর্ক বাধে এবং ১০ সপ্তাহ ধরে তা স্থায়ী ছিল। স্যাটেলাইট ছবিতে দেখা যাচ্ছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি ট্রেঞ্চ, ব্যারাক ও বিবিধ ব্যবহারের উপযোগী হেলিপ্যাড নির্মাণ করছে। স্পুটনিক

চীনের এধরনের সামরিক স্থাপনার মধ্যে বেশ কিছু গর্ত খনন করা হয়েছে যেখান থেকে ভারী অস্ত্রশস্ত্র পরিচালনা ও গোলাবারুদ নিক্ষেপ করা সম্ভব। এছাড়া পদাতিক বাহিনীর জন্যে সশস্ত্র যানবাহন উৎপাদনে কারখানা স্থাপন করা হচ্ছে ডোকলামে, তৈরি হচ্ছে অস্ত্রাগার। সম্পূর্ণ যান্ত্রিক একটি রেজিমেন্ট গড়ে তোলা হচ্ছে যারা হুইটজার ও বিমান বিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহারে পারদর্শী।

ভারতের সেনাবাহিনী প্রধান বিপিন রাওয়াত বলেছেন, ডোকলাম সীমান্তের কাছে চীন সেনা বৃদ্ধি করার পাশাপাশি সামরিক অবকাঠামো গড়ে তুলছে। তিব্বতের কঠিন শীতে চীনা সেনাবাহিনীকে সামারিক সুবিধার যোগান হিসেবে এসব অবকাঠামো ও সেনা বৃদ্ধি করা হচ্ছে মনে হলেও তারা পুনরায় ডোকলামে ফিরে আসতে পারে এবং এব্যাপারে আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে।

গত বছরের ১৬ জুন চীনা সেনারা ডোকলাম সীমান্তে এসে রাস্তা নির্মাণ শুরু করলে ভারাতের সঙ্গে দেশটির বিরোধ শুরু হয়। একই সীমান্ত সংলগ্ন দেশ ভুটান এর প্রতিবাদ জানায়। ভারত সেখানে সেনা মোতায়েন করে। অন্তত ১০ সপ্তাহ চীন ও ভারতের সেনারা ডোকলাম সীমান্তে মুখোমুখি অবস্থানে ছিল। এরপর সমঝোতার মাধ্যমে উভয় দেশ সেখান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে।
গত অক্টোবর থেকে চীন সেখানে ফের স্থায়ী সামরিক স্থাপনা তৈরি শুরু করে বলে স্থানীয় ভারতীয় মিডিয়া খবর দিয়ে আসছে। একই সঙ্গে চীন ও ভুটান সীমান্ত সংলগ্ন সিকিমে ভারত সেনা মোতায়েন করছে। স্পুটনিক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত