শিরোনাম

প্রকাশিত : ০১ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৪:১৫ দুপুর
আপডেট : ০১ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০৪:১৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

নিউজিল্যান্ড সফরের দলে সৌম্যকে নিতে বাধ্য হয়েছেন নির্বাচকরা

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নির্বাচকরা ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের জন্য যোগ্য মনে করছিলেন না সৌম্য সরকারকে। তার পরেও দলে জায়গা হলো সেই সৌম্যের। তিনটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। ঘোষিত দুই সংস্করণের দলেই ডাক পেয়েছেন সৌম্য সরকার। তাকে দলে ফেরানোর ব্যাখ্যায় নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন বলেছেন, সৌম্যকে দলে নিতে বাধ্য হয়েছেন তারা।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে হাবিবুল বলেন, কিছু পরিবর্তন বাধ্য হয়ে করতে হয়েছে।

মাহমুদউল্লাহ নেই, সাকিব নেই। দুই জন সিনিয়র ক্রিকেটার নেই। অন্য কোনো বিকল্পে তাকাতে হলে নতুন কাউকে দেখতে হতো, যে ওই কন্ডিশনে কখনো খেলেনি। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সাদা বলের পরিসংখ্যান খুব একটা সুখর নয় বাংলাদেশের।

এজন্য নতুন কাউকে না নিয়ে সৌম্যর ওপর আস্থা রেখেছেন নির্বাচকরা। কারণ, তিন সংস্করণ মিলিয়ে নিউজিল্যান্ডে ২১ ইনিংসে ৩টি অর্ধশতকের সঙ্গে ১টি শতক আছে সৌম্যর।

হাবিবুল বাসার বললেন, সেখানে নতুন কাউকে দেখার থেকে আমাদের মনে হয়েছে, এমন কাউকে নেই যে এই কন্ডিশনে আগে খেলেছে। পাশাপাশি ওর একটু অলরাউন্ড সামর্থ্যও আছে। এই ভাবনা থেকে তাকে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু অতীত পরিসংখ্যান ভালো হলেও দীর্ঘদিন ফর্মে নেই সৌম্য। ভারত বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দলের ভাবনায় থাকলেও শেষ পর্যন্ত জায়গা হয়নি তার। সদ্য শেষ হওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে ৬ ম্যাচের ১১ ইনিংসে ব্যাট করে ৪ অর্ধশতকে সৌম্যর রান ৪৩৬, উইকেট নিয়েছেন ১৭টি।

লাল বলের ক্রিকেটে কিছুটা ছন্দে ফেরায় সাদা বলের দুই ফরম্যাটে প্রধান কোচ চন্দিকা হাতুরাসিংহের চাওয়াতেই কি সৌম্যকে ফেরানো? এমন প্রশ্নে হাবিবুল বললনে, আমার মনে হয়, কোচের ইনপুট নিয়ে খুব বেশি আলাপ হওয়া উচিত নয়। দল যখন হয়, সবার ইনপুট নিয়েই করা হয়। সবাই একমত যখন হয়, তখনই দলটা গড়া হয়। আমাদেরও কিছু পছন্দ থাকে, কোচেরও থাকে। সম্পাদনা: এল আর বাদল

এলআরবি/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়