শিরোনাম
◈ রাজধানীর বেইলি রোডে আগুন: আটকাপড়াদের উদ্ধার করছে ফায়ার সার্ভিস ◈ ভারত- বাংলাদেশের সম্পর্কের শেকড় অনেক গভীরে:কোলকাতায় নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ◈ বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ১২ ইউনিট ◈ ১৫৭ বিদেশি বন্দিকে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে হাইকোর্টের নির্দেশ ◈ শুক্রবার কমছে সয়াবিন তেলের দাম ◈ ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধু জাতিসংঘেরও ১৫ বছর আগে শিশু আইন প্রণয়ন করেন: আইনমন্ত্রী  ◈ বিপিএলের ফাইনাল ম্যাচের সময় চূড়ান্ত করলো বিসিবি ◈ সাবেক স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ চিকিৎসক লতা মারা গেছেন ◈ সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে ঔষধ-পত্র ও চিকিৎসা সামগ্রী প্রদানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত : ১৬ নভেম্বর, ২০২৩, ০৪:৫৬ দুপুর
আপডেট : ২১ নভেম্বর, ২০২৩, ১২:১৬ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

মেজর (অব.) আখতারের চিঠি 

প্রধানমন্ত্রী আমাকে বেগম জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে  বলেছেন, তারেক রহমান বাধা দিচ্ছেন 

সালেহ্ বিপ্লব: [২] বিএনপির সাবেক এই এমপি ফেসবুকে এ কথা  জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তারেক রহমান আমাকে দেশমাতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছে না। দেশমাতার মুক্তি, সকল রাজবন্দিদের মুক্তি, সবার সকল মামলা প্রত্যাহার করার জন্য সরকার একটি সবুজ সংকেত আমাকে দিয়েছে। তার জন্য দেশমাতা খালেদা জিয়ার সম্মতি দরকার। কিন্তু তারেকের ভারপ্রাপ্ত পদ চলে যাবে বলে সে আমাকে দেশমাতার সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছে না। 

[৩] তিনি আরো বলেন, সবার আগে আমাদের দেশ। আমাদের দেশকে বাঁচাতে মুজিব কন্যা শেখ হাসিনার বিকল্প কোন নেতা নাই। তিনি দেশপ্রেমিক, জনদরদী, মহান ও মহামানবিক। শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার চেয়ে ত্যাগ আর কারো নাই। দেশমাতা খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দিদের মুক্তি ও সকল মামলা প্রত্যাহারের জন্য শেখ হাসিনা ছাড়া আর কোন পথ নাই। 

[৪] খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে বুধবার তারেক রহমানের কাছে একটি চিঠি লিখেছেন মেজর (অব.) আখতার। 

[৫] চিঠিতে তিনি বলেছেন, আপনি বিশ্ববাসী ও দেশের জনগণকে বুঝিয়ে দেন - দেশ ও জাতির স্বার্থে এবং দেশমাতা খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার স্বার্থে যে কোন ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত। আমার বয়স ৭২ বছরের উপরের। এই বয়সে দল, দেশমাতা ও জিয়ার সঙ্গে বেঈমানী করবো না। আমি যা করছি ও করার চেষ্টা করছি তা শুধুমাত্র দেশ, জাতি ও দেশমাতার জন্য। আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি দেশমাতা খালেদা জিয়াসহ বিএনপির সকল রাজবন্দিদের ছেড়ে দিতে সম্মত আছেন। তিনি আমাকে একটি দায়িত্ব দিয়েছেন এবং আমাকে দেশমাতার সঙ্গে কথা বলে তা নিশ্চিত করতে বলছেন। তাই গতকাল দেশমাতার সঙ্গে দেখা করতে হাসপাতালে গিয়েছিলাম। আপনার অনুমতি ছিল না বলে দেখা করতে পারি নাই। সাড়ে ৪ ঘন্টা ডাক্তার জাহিদের সঙ্গে বসেছিলাম। দেশমাতার মেডিকেল টিমের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেছি। তারাও বলেছে দেশমাতার মুক্তির দরকার। দেশমাতার প্রেসক্রিপসানের ছবি আমাকে দেখিয়েছে। কিন্তু দেশমাতার সঙ্গে দেখা করতে আমাকে দেয় নাই। দেশমাতার মুক্তির জন্য আপনার সহায়তা চাচ্ছি। ভাল থাকবেন। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়