শিরোনাম

প্রকাশিত : ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ০৯:২৩ সকাল
আপডেট : ০১ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৫:৪৩ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রাজশাহীতে বিএপির গণসমাবেশ

ডিসি অনুমতি দিলেও, দেয়নি পুলিশ

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপি ধারাবাহিকভাবে গণসমাবেশ করে আসছে। পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ী বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ আগামী শনিবার ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এ কারণে রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদরাসা ময়দানে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছে বিএনপি। রাজশাহী জেলা প্রশাসক ১ ডিসেম্বর থেকে মাঠ ব্যবহারের অনুমতি দিলেও অনুমতি দেয়নি পুলিশ।

যেহেতু পুলিশ অনুমতি দেয়নি। তাই গতকাল মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএসএম সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সেই প্যান্ডেল ভেঙে দিতে বাধ্য করেন নেতা কর্মীদের।

বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর মাদরাসা মাঠে সমাবেশের জন্য গত অক্টোবর মাসেই জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিতভাবে আবেদন করা হয়।

দীর্ঘদিন পরেও অনুমতি না পাওয়ায় সোমবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার ও মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল জেলা প্রশাসকের সঙ্গে দেখা করেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক ১ ডিসেম্বর থেকে মাঠ ব্যবহারের অনুমতি দেন। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে সমাবেশ আয়োজন ও মাইক ব্যবহারের অনুমতি মেলেনি।

এদিকে অনুমতি পাওয়ার আগেই দলটি মাঠের পাশের একটি জায়গায় নেতা কর্মীদের থাকার জন্য প্যান্ডেল করতে শুরু করে।

পুলিশ সেটি ভেঙে ফেলতে বাধ্য করে। আর মাঠের ভেতরে ইতিমধ্যে বাঁশ-খুঁটি পুঁতে মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। বিভাগীয় সমাবেশের আগে সড়ক পরিবহন গ্রুপ ১১ দফা দাবি আদায়ে সরকারের কাছে আল্টিমেটাম দিয়েছে।

দাবি আদায় না হলে ১ ডিসেম্বর থেকে পরিবহন ধর্মঘটেরও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

বিএনপির স্থানীয় নেতা কর্মীরা বলছে, নেতারা ধরেই নিয়েছেন সমাবেশের আগে ১ ডিসেম্বর থেকে পরিবহন ধর্মঘট শুরু হবে। বিএনপির অন্য বিভাগীয় সমাবেশের আগেও পরিবহন ধর্মঘট হয়েছে। তাই আগে থেকেই নেতা কর্মীরা সমাবেশস্থলে চলে আসেন।

রাজশাহীতেও সে রকম প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। যেসব নেতাকর্মী আগে চলে আসবেন, তাদের থাকার জন্য মাদরাসা ময়দানের বিপরীতে একটি ফাঁকা জায়গায় সোমবার সকাল থেকে প্যান্ডেল তৈরির কাজ শুরু হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজপাড়া থানার ওসি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, সমাবেশের অনুমতিই এখনো বিএনপি পায়নি। তার আগেই প্যান্ডেল করার কাজ শুরু করায় এতে বাধা দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় বিএনপি চেয়ারপারসনের অন্যতম উপদেষ্টা এবং এই গণসমাবেশের সমন্বয়ক মিজানুর রহমান মিনু বলেন, মাঠ ব্যবহারের অনুমতি পাওয়া গেছে।

সমাবেশ করা এবং মাইক ব্যবহারেরও অনুমতি পাওয়া যাবে। এ বিষয়ে পুলিশের সাথে আমাদের খুব ভালোভাবেই কথা হচ্ছে। পুলিশ আমাদের মাদরাসা ময়দানেই সমাবেশ করার অনুমতি দেবে আশা করি।

রাজশাহী নগর পুলিশের বিশেষ শাখার উপকমিশনার মো. আবদুর রকিব বলেন, যে স্কুলের মাঠে বিএনপি সমাবেশ করবে বলছে, সে স্কুলে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা চলছে।

বুধবার পরীক্ষা হবে, বৃহস্পতিবার সকালেও একটা পরীক্ষা আছে। তাই এখনো সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি। 

এএঈচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়