শিরোনাম
◈ ‘কিছু ভালো লাগে না’ গ্রুপ দেশের নামে দুর্নাম রটায়: প্রধানমন্ত্রী ◈ বিদেশি ঋণের সুদ পরিশোধে কিছুটা চাপে আছে দেশের অর্থনীতি: অর্থমন্ত্রী ◈ সমালোচনা হবেই, এটা দেখাটা জরুরি না: নান্নু ◈ ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: প্রধানমন্ত্রী ◈ ২০০ ইউনিটের বেশি ব্যবহার করলে বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশ বাড়বে, ১ মার্চ থেকে কার্যকর ◈ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় রাশিয়ার ‘৬০ সেনা নিহত’ ◈ দোষী প্রমাণিত হলে অবহেলাকারী ও চিকিৎসকদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী  ◈ খুলনাকে ৬৫ রানে হারিয়ে প্লে-অফে চট্টগ্রাম ◈ এরশাদ সর্বস্তরে বাংলাভাষা প্রচলনে আইন করেন: জি এম কাদের  ◈ হজে গিয়ে ভিক্ষা করলে ৭ বছরের জেল ও ১৫ কোটি টাকা জরিমানা (ভিডিও)

প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০১:২০ রাত
আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ০১:২০ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ডা. সাবরিনা ও দেশের পুরুষ সমাজ

ইমতিয়াজ মাহমুদ

ইমতিয়াজ মাহমুদ: ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল যে কোভিডের সময় রোগীদের টেস্ট ইত্যাদি নিয়ে তিনি কিছু অনিয়মের সাথে জড়িত ছিলেন। এই অভিযোগে তিনি গ্রেপ্তার হয়েছিলেন, বিচার হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে, সাজা হয়েছে। জেলে ছিলেন তিনি, সাজা খেটেছেন। তিনি একটা বই লিখেছেন, ‘বন্দিনী’ নামে। অনুমান করি বইটা তাঁর জেলজীবন নিয়ে। বইটা নিয়ে আমার কৌতূহল আছে। পড়বো হয়তো। কারাগারের স্মৃতি নিয়ে বই আমি প্রথম যেটা পড়েছিলাম সেটা ছিল আবদুস শহীদের বইটাÑ কারাস্মৃতি। আমি তখন স্কুলে পড়ি। মফঃস্বলে বাস করি, খুব বেশি বই হাতের কাছে পেতাম না। আজিজিয়া বুক ডিপো নামে একটা বইয়ের দোকান থেকে সেবার দুইটা বই কিনে এনেছি। একটা বই ছিল নজরুলের বিচার, কাজী নজরুল ইসলামের বিচার ও কারাদণ্ড নিয়ে গাজী শামসুর রহমানের লেখা, আরেকটা ছিল আবদুস শহীদের কারাস্মৃতি। নজরুলের বিচার নামে বইটা পড়ে আরাম পাইনি, নিতান্ত কিশোর ছিলাম বলেই হয়তো। 

সাহিত্যের সাথে আইনকানুন ইত্যাদির মিশেল দিয়ে বিচিত্র একটা বই। এখন পড়লে হয়তো ভালো লাগতো। কিন্তু কারা স্মৃতি পড়ে তখন খুব প্রভাবিত হয়েছিলাম। খাপরা ওয়ার্ডের ঘটনা কি আমি সেই বইতেই পড়েছিলাম? নাকি বদরুদ্দিন উমরের কোন বইতে? স্পষ্ট মনে করতে পারছি না। গুলিয়ে ফেলছি সম্ভবত। কারা স্মৃতির নতুন সংস্করণ হয়েছে, কে যেন একবার বলেছে আমাকে একটা কপি দান করবে। পাবো হয়তো। এই  লেখাটা বই নিয়ে নয়। এটা হচ্ছে বইমেলায় ডা. সাবরিনার সাথে একদল মানুষ যেরকম আচরণ করেছে সেটা নিয়ে। একটা ভিডিও দেখেছি আমি সেই ঘটনা নিয়ে। আমাদের দেশের পুরুষ সমাজ যে কী মাপের মিসোজিনিস্ট, মূর্খ এবং মন্দ সেটা আপনি বুঝতে পারবেন ওরা সেদিন সাবরিনাকে নিয়ে যেসব কথা বলছিল সেগুলো শুনলে। 

অবাক ব্যাপার কি জানেন, এসব লোক প্রতিদিন জীবনের নানা ক্ষেত্রে নানা মাপের তস্করের চামচামি করে, ওদের ভোট দেয়, তস্করদের সমর্থনে শ্লোগান দেয়। শোনেন, একজন মানুষ যখন কোনো অপরাধের জন্য সাজা ভোগ করে বেরিয়ে আসে তখন কার্যত তার আর কোনো অপরাধ থাকে না। সাজা খেটে আসার পর প্রতিটি মানুষেরই নতুনভাবে জীবন গঠন করার একটা সুযোগ প্রাপ্য হয়। আর লেখকদের ক্ষেত্রে তো জীবনের একটা পর্যায়ে কিছুদিন জেল খেটে আসা একদিক দিয়ে ভালোই। দস্তয়েভস্কির কারাবাস কি তার লেখাকে অধিক উচ্চতায় নিয়ে যেতে ভূমিকা রাখেনি? অস্কার ওয়াইল্ড। বইমেলায় যাচ্ছেন আপনারা, স্পষ্টতই আমাদের মধ্যবিত্তের অপেক্ষাকৃত আলোকিত অংশের মানুষ বলে আপনাদের ধারণা করবে সকলে। আপানদের আচরণ যদি এরকম হয় তাইলে তো এই দেশ নিয়ে অধিক আশাবাদী হওয়া আরও কঠিন হয়ে যায় আরকি। লেখক: আইনজীবী। ফেসবুকে  ১১-২-২৪ প্রকাশিত হয়েছে। 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়