শিরোনাম
◈ আগামী মার্চে ঢাকায় বাংলাদেশ বিজনেস সামিট ◈ ঘন কুয়াশায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় ফেরি চলাচল বন্ধ ◈ নো ম্যানস ল্যান্ডে থাকা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ প্রবেশে নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু ◈ পুলিশ কর্মকর্তার গুলিতে আহত উড়িষ্যার মন্ত্রীর মৃত্যু ◈ কারাগারে অসুস্থ রিজভীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ◈ যুক্তরাষ্ট্র ও ইইউ’র উদ্দেশ্যে তুরস্কের পাল্টা ভ্রমণ সতর্কতা ◈ প্রমোদতরী গঙ্গা বিলাস কলকাতায়, মঙ্গলবার আসবে বাংলাদেশে ◈ ভোটের অধিকার ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আমরা একমত হয়েছি: মির্জা ফখরুল  ◈ মায়ের কাছেই থাকবে দুই জাপানি শিশু, মামলা খারিজ ◈ নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে জেরুজালেমে হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০২ রাত
আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ০৩:২৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা উন্মাদনা যাতে মাত্রা না ছাড়ায়

শিপার মাহমুদ : ফুটবল খেলার বিশ্বকাপ শুরুর পর থেকে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা এই দুটি দল জনপ্রিয়তার শীর্ষে। দুটি দলের ‘বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন’ হওয়ার পরিসংখ্যান কমবেশি থাকলেও জনপ্রিয়তা কেউ কাউকে বেশিদূর ছাড়িয়ে যেতে পারেননি। এছাড়া দু’দলের বিশেষ চমক হচ্ছে ফুটবলের আইডল হিসেবে প্রজন্মের পর প্রজন্ম সৃষ্টি করা। যাদের ভক্ত হয়ে পুরো বিশ্বে উন্মাদনা ছড়ায় সমর্থকরা।

এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ এশিয়ার প্রথম সারিতে বললে কথাটি ভুল হবে না বরং এটিই সত্য। ব্রাজিলের কীর্তিমান ফুটবলার পেলে আর আর্জেন্টিনার দিয়েগো মারাদোনা নান্দনিক খেলায় মুগ্ধ হয়ে বাংলাদেশের মানুষ তাদের ভালোবেসেছে প্রাণভরে। বর্তমান সময়ে সেই ভালবাসা গেছে নেইমার আর লিওনেল মেসির দিকে। লাল-সবুজের দেশে তরুণ প্রজন্মের সিংহভাগ হৃদয়ে এখন নেইমার-মেসির উন্মাদনা। 

বাংলাদেশে নেইমার-মেসির ভক্ত-সমর্থকদের উৎসাহ-উদ্দীপনা আর খেলাকে ঘিরে যেমন তৈরি হয় উন্মাদনা, ঠিক তেমনি রয়েছে নানা বিতর্ক আর দ্বন্দ্ব। কখনো মনে হয়, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ওরা যেন পরস্পরের শত্রু। একে-অন্যের প্রতি গোপন প্রেম ধারণ করলেও কোনো পরিস্থিতিই ঐক্য হতে পারে না। তবে এটাও সত্য যে, ‘আর্জেন্টিনা কিংবা ব্রাজিল’ এই দু’দলের যে কারোর বড় ধরনের লজ্জা কিংবা হার খোদ বিরোধিরাও খুব সহজে মানতে পারে না। তারা বিরোধিতার কারণে বিরোধিতা করলেও বেলা শেষে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকুক এটাই উভয়ের প্রত্যাশা। 

কিন্তু এরইমধ্যে অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও এই প্রীতি আর ভালোবাসাকে উপেক্ষা করে দেশে বেশকিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনাও ঘটে চলেছে, যা আমাদের কাম্য নয়। অনেক দলের সমর্থকদের দেখা যায় নিজ দলের পতাকা উড়াতে গিয়ে দুর্ঘটনায় স্বীকার হয়ে পঙ্গুত্ববরণ করতে। যার গ্লানি প্রতিনিয়ত পরিবারকে টানতে হচ্ছে। তবুও কেন জানি, ওই সকল ফুটবল-প্রেমীদের নিজের পছন্দের দল আর খেলার প্রতি আগ্রহের কোনো কমতি নেই। এসকল ভক্তদের উন্মাদনার কমতি হওয়ার কথাও নয়। তাদের কাছে ফুটবল আর ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার প্রশ্নে কোন দূরত্ব তৈরির সুযোগ নেই। নেইমার-মেসির খেলার যাদু সকল দুঃখকে যেন হার মানায়। 

ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনা সমর্থকদের কথা। এ বিষয়ে লিখতে গিয়ে একটি কথা মনে পড়ল- কোন এক জনৈক ব্যক্তি বলছিল, আমি পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করা এটা যেমন আমার বন্ধুর কাছে যন্ত্রণার, তেমনি আমার ফেল করে ডিপ্রেশনে থাকা এটাও সেই বন্ধুর কাছে বেদনার। কথাটির দ্বারা জনৈক ভদ্রলোক এটাই বুঝাতে চেয়েছিলেন যে, বন্ধু-সমর্থকদের চরিত্রটাই এমন। ওরা যেমন সুখ দেখতেও হিংসা করে আবার দুঃখেও নয়ন-ভিজায়। আমি ওই ভদ্রলোকের কথাটা ঠিক ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে দেখেছি। তারা উভয়েই চায় আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল মাঠে থাকুক, তবে কেউই প্রকাশ করতে চায় না। 

পরিশেষে, সোশ্যালে দেখা একজন সরলমনা রসিক ন্যাটিজনের মন্তব্য দিয়ে লেখাটা শেষ করতে চাই। ওই ভদ্রলোক বলেছিলেন, ‘নেইমারের সঙ্গে সংসার করি; মেসির সাথে পরকীয়া, আমার চরিত্র এমন-ই। আমারে খুঁচাইয়্যা লাভ নাই, ওরা দুজনেই আমার। 

লেখক : সংবাদকর্মী

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়