শিরোনাম
◈ আদালতের আদেশ তো শিক্ষার্থীদের পক্ষেই, তাহলে কার বিপক্ষে আন্দোলন: ওবায়দুল কাদের ◈ গণতন্ত্রের জন্যও শিক্ষার্থীদের লড়াই করার আহ্বান আমির খসরুর ◈ চাল কেজিতে ২ থেকে ৫ টাকা, সবজি ১৫ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে ◈ কোটাবিরোধীরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা শনিবার ◈ ৫ শতাংশ কোটা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্যরা ◈ আনোয়ারা-ফৌজদারহাট পাইপলাইন মেরামত সম্পন্ন, কমবে গ্যাস সংকট ◈ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরে বাংলাদেশ, ভারত ও চীন তিনদেশই খুশি ◈ আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটালে বরদাশত করা হবে না: ডিএমপি কমিশনার ◈ কোটা আন্দোলনকারীরা ঘরে ফিরে যাবে বলে আশাবাদ আইনমন্ত্রীর ◈ অতি বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশিরভাগ এলাকায় হাঁটুপানি, জনজীবন বিপর্যস্ত

প্রকাশিত : ২০ নভেম্বর, ২০২৩, ০৬:৩৩ বিকাল
আপডেট : ২১ নভেম্বর, ২০২৩, ০২:০১ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ইন্টারনেট স্পিড উগান্ডার চেয়েও ৪১ ধাপ পেছনে বাংলাদেশ, বিশ্বাস করেন না মন্ত্রী

মাজহারুল মিচেল: [২] ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার সোমবার (২০ নভেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

[৩] বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ইন্টারনেটের গতি কেমন, তা তুলে ধরে প্রতি মাসে স্পিডটেস্ট গ্লোবাল ইনডেক্স নামে প্রতিবেদন প্রকাশ করে ওকলা। সেখানে এ দাবি করা হয়েছে।

[৪] এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আমি ওকলার ওই রিপোর্ট বিশ্বাস করি না। কারণ ওকলা আমাদের সরকারি কর্তৃপক্ষের কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। আপনি ব্যক্তিগত একটি প্রতিবেদন দিয়ে দিলেন, সেটা আমি স্ট্যান্ডার্ড হিসেবে মেনে নেব, তা হবে না।

[৫] তিনি বলেন, ওকলা কোনো স্ট্যান্ডার্ড না। তারা কোথা থেকে তথ্য নিয়েছে? যদি গতির কথা বলতে চায়, তাহলে গতি মাপবে বিটিআরসি। বিটিআরসির সঙ্গে তারা কথা বলেনি।

[৬] তাহলে প্রতিবাদ দেন না কেন, প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, কী কারণে, ওকলা কী? এমন কী যার জন্য আমাকে প্রতিবাদ দিতে হবে।

[৭] তিনি বলেন, আমার কাজ চিরদিনই আমার কাছে ভালো মনে হবে। আমি একবাক্যে বলবো ২০১৮ সালের যেসব কাজ বা অগ্রগতিগুলো হয়নি, সেগুলো পূরণ করার জন্য আমি সর্বশক্তি দিয়ে চেষ্টা করেছি। যে কারণে আমরা অনেক উন্নতি করতে পেরেছি।

[৮] দেশে শতকরা ৯৮ ভাগ ফোরজি নেটওয়ার্ক আছে জানিয়ে তিনি বলেন, এটি প্রায় দুঃসাধ্য একটি কাজ ছিল। যেখানে থ্রিজি নেটওয়ার্কই প্রসারিত হতে পারেনি। ২০২৩ সালের মধ্যে সারা দেশে ফোরজি নেটওয়ার্ক দিতে পেরেছি।

[৯] ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, চারটি টেলিকম অপারেটরের ভেতরে তিনটি সম্পর্কে অভিযোগ হচ্ছে কল ড্রপ হয়, নেটওয়ার্ক পাই না। চতুর্থ অপারেটর টেলিটকে সর্বসাকুল্যে বিনিয়োগ ছিল ৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। এখন টেলিটকে বিনিয়োগ বেড়ে ১৫ হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি। 

[১০] আরেকটি বড় কাজ হচ্ছে একটি ডমিস্টিক রোমিংয়ের কাজ শুরু হয়েছে। সেটি বাংলালিংকের সঙ্গে এখন পরীক্ষামূলকভাবে চলছে। এর মধ্য দিয়ে বাংলালিংকের নেটওয়ার্ক পুরোটাই ব্যবহার করতে পারবে টেলিটক। আবার টেলিটকের নেটওয়ার্কের নেটওয়ার্ক বাংলালিংক ব্যবহার করতে পারবে, যোগ করেন মন্ত্রী। সম্পাদনা: তারিক আল বান্না

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়